কলকাতায় মানিকচকে গুলিবিদ্ধ শিশু মৃণাল

ট্রেনে যাওয়ার পথে। নিজস্ব চিত্র

মানিকচকে গুলিবিদ্ধ শিশু মৃণাল মণ্ডলকে নিয়ে কলকাতায় গেল তার পরিবার। মালদহে ওই শিশুটির চিকিৎসক নিউরো সার্জেন সুষেণ চট্টোপাধ্যায় কিছু দিনের জন্য দেশের বাইরে যাচ্ছেন। কিন্তু মৃণালের ধারাবাহিক চিকিৎসায় যাতে কোনও ছেদ না পড়ে তা নিশ্চিত করতে কলকাতার বাঙুর ইনস্টিটিউট নিউরোলজিতে রেফার করেন তিনি।

মৃণালের চিকিৎসক শনিবার বলেন, “প্রায় সাতদিনের জন্য আমি দেশের বাইরে থাকব। তাই শিশুটিকে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। আর শিশুটি এখন অনেকটাই সুস্থ। প্রাণহানির আশঙ্কা কার্যত আর নেই। তবে শিশুটির স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে আরও সময় লাগবে। সে জন্য আরও কিছু অস্ত্রোপচার, চিকিৎসার প্রয়োজন রয়েছে।” সেইমতো শনিবার রাতে মৃণালকে নিয়ে পরিবারের লোকজন মালদহ থেকে গৌড় এক্সপ্রেসে কলকাতা রওনা দেন। আজ, রবিবার বাঙুরে তাকে ভর্তি করানোর কথা। তবে এই অবস্থায় শিশুটির শারীরিক ধকলের কথা ভেবে চিন্তিত তার বাবা-মা। শিশুটির মা পঞ্চায়েত সদস্য পুতুল মণ্ডল এ দিন বলেন, “মালদহে সকলের সহযোগিতা পেয়েছি। যার জন্য আমার ছেলে ক্রমশ সুস্থ হয়ে উঠেছে। তবে বাইরে যাচ্ছি বলে একটি চিন্তা হচ্ছে।” সকলকে পাশে পাবেন কিনা তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন তিনি।

তবে মৃণালের আরও কিছুটা উন্নতি হয়েছে। এ দিন তরলে খাবারের পরিবর্তে সে হাল্কা খিচুড়ি খেয়েছে। এদিকে, তার পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন তৃণমূল নেতা তথা মালদহের জেলা পরিষদের সহকারি সভাধিপতি গৌরচন্দ্র মণ্ডল। তিনি বলেন, “আমরা ওই শিশুর পরিবারের পাশেই রয়েছি। পরিবারের হতাশ হওয়ার কিছু নেই। সুষেণ বিদেশ থেকে ফিরলে চিকিৎসকদের পরামর্শ মতো আবার আমরা শিশুটিকে জেলায় ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করব।”