‘প্রতারক’ ভারতীয় ডাক্তারের কারাদণ্ড

প্রতীকী ছবি।

স্বাস্থ্যবিমা খাতে জালিয়াতি ও আর্থিক তছরুপের দায়ে অভিযুক্ত ভারতীয় বংশোদ্ভূত এক মহিলা চিকিৎসককে ৫ বছর কারাদণ্ড দিল আমেরিকার এক আদালত। মার্কিন অ্যাটর্নি অ্যালেক্স সি এ কথা জানান। একই মামলায় অভিযুক্ত ওই মহিলার স্বামী ইতিমধ্যেই জেল খাটছেন। তবে তাঁর সাজার পরিমাণ কম।

ঘটনা ক্যালিফোর্নিয়ার সারাটোগা শহরের। ৪৭ বছরের ভারতীয় বংশোদ্ভূত চিকিৎসক বিলাসিনী গণেশের বিরুদ্ধে চিকিৎসা বিমা সংক্রান্ত একগুচ্ছ জালিয়াতির অভিযোগ ওঠে। অভিযোগ, নিজের প্রভাব খাটিয়ে কোনও রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি না করিয়েই বিমা সংস্থার থেকে হাজার হাজার পাউন্ড আদায় করতেন তিনি। তার জন্য তৈরি রাখতেন জাল নথিপত্রও। তদন্তে দেখা গিয়েছে, বিমা সংস্থার কাছে কোনও এক রোগী মাসে ১২ থেকে ১৫ বার পর্যন্ত এই ধরনের ভুয়ো নথি জমা দিয়ে অর্থ দাবি করেছেন। বিলাসিনীর সঙ্গে অভিযোগ ওঠে তাঁর স্বামী গ্রেগরি বেলচেরের বিরুদ্ধেও।

গত বছর জুলাইয়ে অভিযুক্ত দু’জনের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয় তাঁদের। আট সপ্তাহ চলে এই মামলার শুনানি। বিলাসিনী এবং তাঁর স্বামী দু’জনেই দোষী সাব্যস্ত হন মার্কিন আদালতে। গত এপ্রিলে ৫৬ বছরের গ্রেগরিকে এক বছর এক দিনের কারাদণ্ডে দেয় আদালত। মুক্তির পরে আরও তিন বছর পুলিশি নজরদারিতে থাকতে হবে তাঁকে। সম্প্রতি বিলাসিনীকে পাঁচ বছরের সাজা দেন বিচারক লুসি কোহ। বিচারব্যবস্থায় ব্যাঘাত ঘটানোর অভিযোগও উঠেছে বিলাসিনীর বিরুদ্ধে। বিচারক জানান, বহু বার আইনবিরুদ্ধ ভাবে বিমা সংস্থার থেকে অর্থ আদায় করেছেন বিলাসিনী। কারাদণ্ডের পাশাপাশি সাড়ে তিন লক্ষ ডলারের জরিমানাও হয় তাঁর। ১ নভেম্বর থেকে তাঁর সাজা শুরু হওয়ার কথা। ছাড়া পাওয়ার পরে স্বামীর মতোই তিন বছর পুলিশি নজরদারিতে থাকতে হবে ভারতীয় বংশোদ্ভূত ওই চিকিৎসককে।