সলমন খানের এতগুলো ছবি মুক্তি পায়নি!

তিনি বলিউডের ভাইজান। ভক্তেরা অধীর আগ্রহে বসে থাকেন, কবে প্রিয় ভাইজানের ছবি মুক্তি পাবে। কিন্তু এহেন সলমন খানের কেরিয়ারেরই অনেক ছবি মুক্তি পায়নি। সলমনের শুরুর সময়েও এবং পরবর্তী কালেও নানান কারণে আটকে গিয়েছে তাঁর বহু ছবি। সেই ছবিগুলোর কী নাম, সঙ্গে কে ছিলেন সে সব তথ্যগুলোই জেনে নেওয়া যাক।
‘ম্যায়নে প্যায়ার কিয়া’ ছবিটির পরেও আর একটি ছবির কাজ শুরু করেছিলেন সলমন-ভাগ্যশ্রী জুটি। সে ছবির নাম ‘রণক্ষেত্র’। কিন্তু সেই ছবি আর মুক্তি পায়নি। কারণ মাঝপথে বিয়ে করে ফেলেন ভাগ্যশ্রী। আর যার কারণে ছবির শুটিংও পিছিয়ে যাচ্ছিল দিনের পর দিন। পরে আর ছবিটির শুটিং হয়নি।
‘ঘেরাও’ নামক আর একটি ছবির কাজেও হাত দিয়েছিলেন সলমন খান। কিন্তু শুভ মহরতের পরেই বন্ধ হয়ে যায় এই ছবির কাজ। রাজকুমার সন্তোষী পরিচালিত এই ছবিতে সলমনের বিপরীতে অভিনয় করার কথা ছিল মনীষা কৈরালার। যদিও কেন এই ছবির শুটিং বন্ধ করতে হল তা কখনও খোলসা করেননি সলমন।
‘অ্যায় মেরে দোস্ত’ ছবিতেও অভিনয় করার কথা ছিল সলমন খানের। দিব্যা ভারতী, করিশ্মা কপূর, আরবাজ খানের সঙ্গে সলমনেরও থাকার কথা ছিল ছবিতে। কিন্তু ডেটের সমস্যার কারণেই সলমনকে পিছিয়ে আসতে হয়। ছবিটিও আর তৈরি হয়নি।
‘বুলন্দ’ ছবির জন্য বেশির ভাগ অংশেরই শুটিং করে ফেলেছিলেন সোমি আলি এবং সলমন খান। কিন্তু পরবর্তী কালে বন্ধ হয়ে যায় শুটিং। কেন বন্ধ হয়ে যায় এই ছবি তার কারণ অবশ্য জানানো হয়নি। তবে গুজব রটে, সলমন আর সোমি আলি দু’জনে নাকি ডেট করছিলেন সেই সময়ে।
ডেভিড ধওয়নের সঙ্গে সলমনের জুটি দর্শকমহলে খুবই প্রশংসিত। তবে এই জুটিরই একটি ছবি মুক্তি পায়নি। ‘রাজু রাজা রাম’ নামের সেই ছবিতে সলমনের সঙ্গেই দেখা যেত গোবিন্দা এবং জ্যাকি শ্রফকে। কিন্তু বাজেটের সমস্যার কারণেই শেষ পর্যন্ত আর ছবিটি তৈরি হয়নি।
‘জলওয়া’ বলেও সলমনের আর একটি ছবি মুক্তি পায়নি। এই ছবিতে সলমনের সঙ্গেই অভিনয় করার কথা ছিল সঞ্জয় দত্ত এবং আরমান কোহালির। শোনা যায়, পরিচালকের সঙ্গে প্রযোজকের দ্বন্দ্বের কারণেই নাকি আর মুক্তি পায়নি ছবিটি।
মুকুল আনন্দ পরিচালিত ‘দশ’ ছবিটির কাজে হাত দিয়েছিলে সলমন খান। সলমনের সঙ্গে ছিলেন সঞ্জয় দত্ত, রবিনা টন্ডন। ছবির একটি গান মুক্তি পেয়েছিল। সুপারহিট সেই গানটি হল ‘সুনো গউর সে দুনিয়ায়ালে’। কিন্তু শুটিং চলাকালীন মৃত্যু হয় ছবির পরিচালক মুকুল আনন্দের। আর তার কারণেই বন্ধ হয়ে যায় ছবিটি।