রবি শাস্ত্রীর চেয়ে ভাল কোচিং করাতেন প্রাক্তন এই ভারতীয় ক্রিকেটাররা

রবি শাস্ত্রী এক দিকে বলেছেন, বর্তমান ভারতীয় দলটা নাকি গত ১৫-২০ বছরে যে ক’টি ভারতীয় দল খেলেছে, তাদের থেকে সেরা। কিন্তু ফ্যানেরা এই মন্তব্যে একেবারেই খুশি নন। ইংল্যান্ডের কাছে ওয়ান ডে সিরিজ হারতে হয়েছে। টেস্ট সিরিজে হারতে হয়েছে ৪-১ ব্যবধানে।
রবি শাস্ত্রীর জায়গায় প্রাক্তন ক্রিকেটারদের মধ্যে অন্য কেউ কোচ হলে কি পারফরম্যান্স ভাল হত? দেখুন তো নীচের তালিকা থেকে কাকে কোচ হিসাবে পছন্দ আপনার।
ফ্যাব ফোরের অন্যতম হায়দরাবাদের ব্যাটিং লেজেন্ড লক্ষ্মণ টেস্টের আসরে ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম সফল ব্যাটসম্যান। ভারতকে এমন অনেক ম্যাচ জিতিয়েছিল ভিভিএসের ব্যাটিং, সে সব এখন মিথ। মেন্টর ও কোচ হিসাবে তাঁর দক্ষতা দেখা গিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ যখন আইপিএল খেলল, তখনই। লক্ষ্ণণ ভারতীয় কোচ হলে মন্দ হত কি?
শাস্ত্রীর আগে ভারতীয় দলের হেড কোচ ছিলেন অনিল কুম্বলে। কিংবদন্তি এই লেগস্পিনার শুধু ভারতেরই নয়, তামাম ক্রিকেট দুনিয়ার গর্ব। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি বাদে জাম্বো থাকাকালীন ভারতীয় ক্রিকেট দল কোনও টেস্ট বা দ্বিপাক্ষিক ওডিআই ক্রিকেট সিরিজ খোয়ায়নি। আবার তাঁকে ফিরিয়ে আনা যেতেই পারে।
বিস্ফোরক কোচ চাইলে প্রথমেই মনে আসবে বীরেন্দ্র সহবাগের কথা। আন্তর্জাতিক আসরে সতেরো হাজারেরও বেশি রানের মালিক বীরু যে কোনও বোলিং আক্রমণকে ছিন্নভিন্ন করতে পারতেন।
অন্যতম সেরা ক্রিকেট অধিনায়ক কিন্তু ক্রিকেট কোচ হিসাবেও অসাধারণ হতে পারেন। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের অভিজ্ঞতা আর পরামর্শ মেনে চললে দেশ-বিদেশ সর্বত্রই জয় পেতে পারে ভারত।
জেন্টলম্যানস গেমের অন্যতম জেন্টলম্যান রাহুল দ্রাবিড়। কোচ হিসেবে দ্রাবিড় কত দক্ষ, সেটা যুব দলকে প্রশিক্ষণ দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন। বর্তমানে ভারতীয় দলে খেলা একাধিক তারকা তাঁর হাতেই তৈরি। তাঁর প্রশিক্ষণাধীনে চলতি বছরের শুরুর দিকে ভারতীয় যুব দল অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জিতেছে।
আন্তর্জাতিক মঞ্চে ৬০০-র বেশি উইকেট রয়েছে জাহির খানের ঝুলিতে। এক দশকেরও বেশি সময় ভারতীয় দলের পেস বিভাগকে সামলেছেন। ৯২টি টেস্ট এবং ২০০টি ওডিআই অভিজ্ঞতাসম্পন্ন এই কিংবদন্তি ক্রিকেটার থাকার সময়ও একাধিক তরুণ বোলারের মেন্টর ছিলেন।