আট বছর পর কলকাতা লিগে ট্রফির রং সবুজ-মেরুন

জোড়া গোল করলেন হেনরিই। —ফাইল চিত্র

মোহনবাগান ২ (হেনরি) — কলকাতা কাস্টমস ০

দিনের আলো পড়তেই পুরো মোহনবাগান গ্যালারিতে জ্বলে উঠল মোবাইল ফোনের টর্চ। যেন ঘুরে বেড়াচ্ছে জোনাকি। তার আগে থেকেই মাতছিলেন তাঁরা। আবির, ফানুস উড়ল মোহনাগানের আকাশে। তার মধ্যেই লিগ জয়ের লক্ষ্যে লড়াই চলল মোহনবাগান ফুটবলারদের। কোচ হিসেবে প্রথম সাফল্য তুলে নিলেন শঙ্করলাল চক্রবর্তী।

ডার্বি ড্র আর মহমেডানের কাছে ইস্টবেঙ্গলের হারের সঙ্গেই মোহনবাগানের রাস্তাটা আরও সহজ হয়ে গিয়েছিল এ বার। প্রথম থেকেই লিগ জয়ের আবহটা তৈরি করতে শুরু করেছিলেন শঙ্করলালের ছেলেরা। কখনও শীর্ষে বাগান তো কখনও বেঙ্গল। কিন্তু জোড়া হারের মাঝে একটা ড্র ইস্টবেঙ্গলকে অনেকটাই পিছিয়ে দিয়েছিল। উজ্জ্বল হয়ে উঠেছিল মোহনবাগানের লিগ জয়ের লক্ষ্য। মহমেডানের কাছে ইস্টবেঙ্গলে হারের পরই মোহনবাগানের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মাঝে ছিল আজকের কলকাতা কাস্টমস ম্যাচ।

এই ম্যাচ খেলতে নামার আগে মোহনবাগানের পয়েন্ট ছিল ৯ ম্যাচে ২৩। একটিও ম্যাচ না হেরেই এখানে পৌঁছেছিল সবুজ-মেরুন ব্রিগেড। হেনরি কিসেকার জোড়া গোলেই প্রথমার্ধ শেষ হয়েছিল মোহনবাগানের। শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক মোহনবাগান প্রথম গোল তুলে নিয়েছিল ম্যাচের তিন মিনিটেই। দ্বিতীয় গোল ৪৪ মিনিটে। লিগে ৬ নম্বর গোলটি করে ফেললেন হেনরি।

আরও পড়ুন
হামাগুড়িতে অভিনব উৎসব নায়ক আজার

ম্যাচের তিন মিনিটে অরিজিৎ বাগুইয়ের থেকে বল পেয়ে হেনরি কিসেকার ডান পায়ের শট চলে যায় গোলে। লিগের পঞ্চম গোলটি করে ফেলেন হেনরি। ৪৪ মিনিটে দ্বিতীয় গোল করে যান সেই হেনরিই। দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে সামনের দিকে বল বাড়িয়েছিলেন ডিকা।  সেই বল ধরেই শুভমকে দ্বিতীয়বার পরাস্ত করলেন সেই হেনরিই। তার আগেই নিশ্চিত গোলের সুযোগ নষ্ট করেছেন ডিকা। প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে হ্যাটট্রিকের সুযোগও নষ্ট করলেন হেনরি কিসেকা।

 ২০০৯-এ শেষ কলকাতা লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল মোহনবাগান। তার পরের আট বছর টানা কলকাতা লিগ গিয়েছে ইস্টবেঙ্গলের ঘরে। আবার সেই লিগ ফিরল মোহনবাগানে। লিগ শেষের আগেই উৎসবের জোয়ারে ভাসল মোহনবাগান মাঠ। ৫৬ মিনিটে ব্রিতোর জায়গায় আজহারউদ্দিনকে নামিয়ে চমক দিলেন শঙ্করলাল। আর শুরুতেই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে তাঁর উপর ভরসা রাখার প্রমাণ দিলেন আজহারউদ্দিন। কিন্তু ভাগ্য খারাপ ছিল তাঁর। ডান প্রান্ত থেকে উড়ে আসা অরিজিৎ বাগুইয়ের ক্রসে আজহারউদ্দিনের হেড পোস্টে লেগে ফেরে। ৩-০ হয়ে যেতে পারত।

এর মধ্যেই চকিতে আক্রমণে ওঠা কাস্টমস গোলের কাছে এসে বার কয়েক খেই হারায়। ৬৪ মিনিটে সহজ সুযোগ নষ্ট করেন রাম মালিক। কলকাতা কাস্টমস পুরো লিগে এই প্রথম ম্যাচ হারল। খুব সহজ প্রতিপক্ষ ছিল না।

(ক্রিকেটের খবর,ফুটবলের খবর, টেনিসের খবর, হকির খবর - খেলার খবরের সেরা ঠিকানা আমাদের খেলা বিভাগ।)