Anandabazar Patrika Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading Newspaper

তিনশো রান তোলা কঠিন, বলছেন পিচ প্রস্তুতকারক


এশিয়া কাপে শুধু বিপক্ষের বোলাররাই নন, ব্যাটসম্যানদের সামনে বড় চ্যালে়ঞ্জ হয়ে উঠতে পারে সংযুক্ত আরব আমিরশাহির উইকেট। দুবাই এবং আবু ধাবি— এই দুই শহরের মাঠে হবে আসন্ন এশিয়া কাপ ক্রিকেট। দুবাইয়ের প্রধান পিচ প্রস্তুতকারক টোবি লামস়ডেন ইঙ্গিত দিয়েছেন, স্থানীয় আবহাওয়া ম্যাচের ওপর বেশি প্রভাব ফেলতে পারে।

সেটা কী রকম? পিচ প্রস্তুতকারক বলেছেন, ‘‘এখানে দিনে প্রচণ্ড গরম। রাতে আর্দ্রতা বাড়বে, খুব শিশির পড়ারও আশঙ্কা আছে। সারা দিন ধরে পরিবেশ, পরিস্থিতি বদলে যেতে পারে। বিকেলের দিকে পিচে দ্রুত বল আসতে পারে। আবার সন্ধ্যার পরে বল সিম করতে পারে। স্পিনও হতে পারে।’’ টোবির কথায় পরিষ্কার, ব্যাটসম্যানদের জন্য স্বর্গভূমি নাও হতে পারে দুবাইয়ের বাইশ গজ। সাধারণত, ওয়ান ডে ম্যাচে তিনশো রান এখন হামেশাই দেখা যায়। কিন্তু পিচ প্রস্তুতকারক সে রকম আশার বাণী শোনাচ্ছেন না। তাঁর মন্তব্য, ‘‘আমরা দুটো নতুন পিচ বানিয়েছি দুবাইয়ে। সাধারণত এখানে প্রথমে ব্যাট করলে ২৬০ রানের মতো ওঠে। আমরা চেষ্টা করছি, যেন আর একটু ব্যাটিং সহায়ক পিচ বানানো যায়। কিন্তু ঘটনা হল, বছরের এই সময় সেটা করা খুব কঠিন।’’

বাংলাদেশ বনাম শ্রীলঙ্কার ম্যাচ দিয়ে ১৫ সেপ্টেম্বর শুরু হচ্ছে এশিয়া কাপ। দু’দলই দুবাই পৌঁছে শুরু করে দিয়েছে অনুশীলন। মঙ্গলবার বাংলাদেশের শাকিব আল হাসান বলছিলেন, ‘‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে একটা ভাল সিরিজ খেলে আমরা এখানে এসেছি। সেই সিরিজের আত্মবিশ্বাস এশিয়া কাপে কাজে লাগবে।’’ তবে পাশাপাশি বাংলাদেশের এই অলরাউন্ডার সতর্ক তাদের দুই প্রতিদ্বন্দ্বী দল নিয়েও। শাকিব বলেছেন, ‘‘সীমিত ওভারের ক্রিকেটে শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তানও কিন্তু ভাল ছন্দে আছে। পরের রাউন্ডে যেতে গেলে আমাদের সেরা খেলাটাই খেলতে হবে।’’ 

প্রথম ম্যাচের প্রতিদ্বন্দ্বী নিয়ে প্রশ্ন করা হলে শাকিব বলেন, ‘‘শ্রীলঙ্কার দলটা সত্যিই ভাল। ওদের দলে বেশ কয়েক জন ক্রিকেটার আছে, যারা ম্যাচ জিতিয়ে দিতে পারে। তাই কোনও বিশেষ একজন নয়, পুরো দলটাকে রেখেই আমরা রণনীতি তৈরি করব।’’ শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথেউজও সতর্ক। প্রতিযোগিতা নিয়ে তাঁর মন্তব্য, ‘‘এই প্রতিযোগিতাটা এশিয়ার সব দেশই খুব গুরুত্ব দিয়ে দেখে। আমাদের গ্রুপে বাংলাদেশ আর আফগানিস্তান আছে। দুটো দলের কাউকেই হাল্কা ভাবে নেওয়ার প্রশ্ন নেই। প্রতিটা ম্যাচই আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ।’’

তবে আপাতত যা পরিস্থিতি, এশিয়া কাপ খেলতে আসা প্রতিটা দলকেই চিন্তায় রাখবে দুবাইয়ের আবহাওয়া। প্রচণ্ড গরমের কথা মাথায় রেখে ম্যাচ দিন-রাতের করে দেওয়া হয়েছে। ভারতীয় দল দু’ভাগে দুবাই পৌঁছবে। রোহিত শর্মা-সহ যাঁরা ইংল্যান্ড সফরে নেই, তাঁদের ১৩ তারিখ দুবাই চলে যাওয়ার কথা। বাকিরা ইংল্যান্ড থেকে ১৬ তারিখ রাতের মধ্যে দুবাই পৌঁছে যাবেন। ১৮ তারিখ হংকংয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে এশিয়া কাপ অভিযান শুরু করছে ভারত। পরের দিনই রোহিতরা খেলতে নামবেন চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিরুদ্ধে।  


Anandabazar Patrika Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading Newspaper