Anandabazar Patrika Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading Newspaper

গুমনামী নিয়ে ফের বিতর্ক


কবে ছবিটি হবে, কে মুখ্য চরিত্রে থাকবে... ইত্যাদি নিয়ে শুরু থেকেই চর্চায় ছিল সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ‘গুমনামী’। নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর পরিবার থেকেও আপত্তি উঠেছিল। যেহেতু নেতাজির অন্তর্ধানের মতো বিতর্কিত বিষয় নিয়ে ছবি, তাই প্রযোজনা সংস্থাও আগাম প্রচার চাইছে না। ছবিটি পুজোয় মুক্তি পাবে কি না, তা নিয়েও ধোঁয়াশা রয়েছে। তার মাঝেই ‘গুমনামী’ নিয়ে নতুন বিতর্ক মাথাচাড়া দিয়ে উঠল। 

অবশ্য সরাসরি ছবিটি নিয়ে নয়। যে বইয়ের আধারে সৃজিতের  চিত্রনাট্য, সেটিকে নিয়ে। পরিচালক অনিকেত চট্টোপাধ্যায় সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় চন্দ্রচূড় ঘোষ এবং অনুজ ধরের ‘কনানড্রাম’ বইটি নিয়ে কিছু নেতিবাচক মন্তব্য করেন। বইয়ে গুমনামী বলে যে চরিত্রটি রয়েছে, (যাতে অভিনয় করছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়) সেটি ভ্রান্তিতে ভরপুর বলে নানা উদাহরণ সহযোগে অনিকেত লিখেছেন। এতেই দানা বেঁধেছে বিতর্ক। নেটিজ়েনদের মতে, বইটির আড়ালে প্রকারান্তরে সৃজিতের ছবিটিকে অপমান করার জন্যই অনিকেত এ সব করেছেন। এই পোস্টের জন্য তাঁকে ট্রোল করাও হয়েছে। এতে তিনি দমেননি। নিজের বক্তব্যে অনড় থেকে ‘কনানড্রাম’ নিয়ে আরও পোস্ট করেছেন! 

অনিকেত যেমন সরাসরি সৃজিতের ছবিটি উল্লেখ করে বিরূপ মন্তব্য করেননি, ঠিক তেমন ভাবে সৃজিতও অনিকেতের উদ্দেশে কিছু বলেননি। বরং চন্দ্রচূড় ঘোষের একটি পোস্ট নিজের ওয়ালে তুলে দিয়েছেন। যেখানে অনিকেতের বক্তব্যের বিরোধিতা করেছেন বইয়ের লেখক চন্দ্রচূড় ঘোষ। এবং এটা যে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, সেটাও বুঝিয়ে দিয়েছেন চন্দ্রচূড়। 

বিষয়টি নিয়ে সৃজিতের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা হলে তাঁকে পাওয়া যায়নি। তবে অনিকেত সাফ জানিয়ে দেন, ‘‘সৃজিতের ছবি নিয়ে আমার কোনও ধারণা নেই। আমি ‘কনানড্রাম’ বইটি পড়ে নিজের মতামত জানিয়েছি। জোর করে ওই ভণ্ডটিকে নেতাজি বলে চালানোর চেষ্টা রয়েছে সেখানে। সেটা করতে গিয়ে এত হাস্যকর জিনিস লেখা হয়েছে যে বলার নয়! সৃজিত শিক্ষিত, বুদ্ধিমান। ও নিশ্চয়ই গুমনামীকে নেতাজি বলে না চালিয়ে ইমপস্টারই বলবে!’’ 

তবে সৃজিতই প্রথম গুমনামীকে নিয়ে ছবি করছেন না। এর আগে অম্লানকুসুম ঘোষ ‘সন্ন্যাসী দেশনায়ক’ নামে একটি ছবি শুরু করেছিলেন ভিক্টর বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে। একই বিষয়ে তথ্যচিত্রও বানিয়েছিলেন তিনি। ‘কনানড্রাম’-এর লেখক চন্দ্রচূড় এবং অনুজ ধরের সঙ্গে তাঁর পরিচয়ও ছিল। তবে তিনি নিজস্ব রিসার্চের ভিত্তিতেই ছবিটি বানিয়েছেন। এ দিকে সৃজিত এবং অনিকেতের দ্বন্দ্বও নতুন নয়। কিছু দিন আগে কবীর সুমন এবং অনিকেতের মধ্যে গোলমাল বাধে। সেখানে সুমনের পক্ষ নিয়ে সৃজিত বিতর্ক আরও উস্কে দেন। অনিকেত কি তারই পাল্টা দিলেন?  

বলা হয়, ভাল-মন্দ যাই হোক, প্রচারই আসল। সৃজিত-অনিকেতের পোস্টের পাল্টা মন্তব্যে টলিউড সরগরম। এই বিতর্ক সৃজিতের ‘গুমনামী’কে কোনও বাড়তি সুবিধে দিতে পারে কি না, দেখা যাক।


Anandabazar Patrika Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading Newspaper