পরিচালকের আসনে কঙ্গনা

কঙ্গনা রানাবত

স্বাধীনতা দিবসে মুক্তি পেয়েছে কঙ্গনা রানাবতের প্রতীক্ষিত ছবি ‘মণিকর্ণিকা: দ্য কুইন অব ঝাঁসি’র অফিশিয়াল পোস্টার। সেই ছবির বাকি থাকা কাজ এ বার সম্পন্ন হবে পরিচালক ছাড়াই। আর পরিচালকের অনুপস্থিতিতে দায়িত্ব নিয়েছেন কঙ্গনা।

ছবিটি পরিচালনা করেছেন কৃশ। চিত্রনাট্য লিখেছেন ‘বাহুবলী’ খ্যাত বিজয়েন্দ্র প্রসাদ। এনটিআর-এর বায়োপিকের কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন কৃশ। পিরিয়ড ড্রামা তৈরি করতে এমনিই অনেকটা সময় লেগে যায়। তাই পরিচালককেও দোষ দেওয়া যায় না। সূত্রের খবর, কৃশের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন কঙ্গনা। এবং সেই মতো ছবিটি সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্ন করার দায়িত্বও কাঁধে নিয়েছেন তিনি।

কঙ্গনার পরিচালক হওয়ার শখ বরাবরের। ‘মণিকর্ণিকা...’র পরেই একটি কমেডি পরিচালনা করার ইচ্ছে রয়েছে তাঁর। হনসল মেটার ‘সিমরন’ দিয়ে চিত্রনাট্য লেখায় হাতেখড়ি করে‌ছেন অভিনেত্রী। যদিও সেই ছবির অন্য চিত্রনাট্যকার অপূর্ব আসরানির সঙ্গে কঙ্গনার ঝামেলা নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি।

পরিচালক হিসেবে কঙ্গনা কতটা সফল হবেন, জানা নেই। তবে এই ছবির দৌলতে তাঁর পরিচালনায় হাতেখড়ি হয়ে গেল, তা নিয়ে সন্দেহ নেই।