‘ফেসবুক থেকেই কাজ পেয়েছিলাম’

শিবিন

ঝুলিতে তাঁর দু’টি শো, ‘সুভরিন গুগ্গল’ ও ‘বীরা’। দু’টিই কলেজ পড়ুয়াদের মধ্যে জনপ্রিয় হয়েছিল। নতুন ধারাবাহিক ‘ইন্টারনেট ওয়ালা লাভ’-এ রেডিয়ো জকির চরিত্রে দেখা যাবে শিবিন নারাঙ্গকে। চরিত্র সম্পর্কে উচ্ছ্বসিত শিবিন বললেন, ‘‘আমি এমন এক রেডিয়ো জকির চরিত্র করছি (জয়) যে, সোশ্যাল মিডিয়াতেও খুব জনপ্রিয়। হাজার-হাজার ফলোয়ার। মেয়েদের মধ্যেও বেশ পপুলার। ইন্টারনেট তার ধ্যান-জ্ঞান।’’ শিবিন কি ইন্টারনেট ছাড়া এক মুহূর্ত থাকতে পারেন? ‘‘জয়ের মতো অতটাও ইন্টারনেট পাগল নই। তবে ইন্টারনেট ছাড়া আজকের যুগে চলে নাকি! চেষ্টা করছি, যেন চরিত্রের মধ্য দিয়ে সেই উন্মাদনা ফুটিয়ে তুলতে পারি,’’ হালকা হাসি অভিনেতার কণ্ঠে।

অভিনেত্রী স্মৃতি কালরার সঙ্গে শিবিনের প্রেমের জল্পনা নিয়ে বার বার লেখা হয়েছে। শিবিনের জবাব, ‘লিখলেই তো সব কিছু সত্যি হয়ে যায় না। স্মৃতি আমার বেস্টি। আমরা দু’জনেই দিল্লির। তিন-চার দিন অন্তর ওর সঙ্গে দেখা হয়। একসঙ্গে খেতে যাই। সোশ্যাল মিডিয়ায় আমাদের বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে ছবি দেখে লোকে ভাবে প্রেম করছি। কিন্তু বন্ধুত্বের বেশি কিছু নেই।’’

ইন্টারনেটে পাতা প্রেমের দুনিয়ায় খাতা খুলতে গিয়েও বিপদে পড়েছিলেন শিবিন। ‘‘নতুন নতুন অনেক ডেটিং অ্যাপ খুলেছে। নিজেকে আপডেটেড রাখার জন্য একটি ডেটিং অ্যাপে অ্যাকাউন্ট খুলেছিলাম। একটা মেয়ের সঙ্গে কথাও শুরু হয়েছিল। তার পরে সে এক দিন রেগেমেগে বলে, শিবিনের ভুয়ো প্রোফাইল খুলে চ্যাট করছেন, লজ্জা করে না?’’ মনে মনে দুঃখ পেলেও নিজের জনপ্রিয়তা দেখে শিবিন খুশিই হয়েছিলেন সে দিন।

দিল্লির ছেলে মুম্বইয়ে পাকাপাকি ঘাঁটি গাড়লেও দিল্লির রাজমা-চাওয়াল, ছোলে-বটোরা বড্ড মিস করেন। ‘‘মুম্বইয়ের একটা বিষয় পছন্দ নয়। সেটা হল এখানকার রাস্তাঘাট। কোনও রক্ষণাবেক্ষণ নেই।’’ শাহরুখ খানের বড় ভক্ত শিবিন এক বার বাদশার সঙ্গে দেখাও করেছিলেন। ‘‘আমার শোয়ের প্রচারে এসেছিলেন উনি। আমাকে অনেক উৎসাহও দিয়েছিলেন সে বার,’’ বললেন শিবিন।

আর সোশ্যাল মিডিয়ায় ভক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখেন? ‘‘কম-বেশি রাখি। তখন মডেলিং করতাম। ফেসবুকে ছবি দেখেই প্রথম ধারাবাহিকের ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর ফোন করেছিলেন,’’ নস্ট্যালজিয়ার ছোঁয়া তাঁর কণ্ঠে।