Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

এ বার পুজোয় কী পোশাক? টিপস দিচ্ছেন ডিজাইনার অনুপম

নিজস্ব প্রতিবেদন
০৪ অক্টোবর ২০১৮ ১৫:১৪
ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে হ্যান্ডলুম পরিয়েছেন অনুপম।

ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে হ্যান্ডলুম পরিয়েছেন অনুপম।

দুর্গাপুজোর ক্যানভাস যাচ্ছে বদলে...

এখন আর আগের মতো চল নেই বেশি কাজের, ভারী পোশাকের। গ্লোবাল বাঙালি সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে সব কিছুকেই যেখানে হাল্কা করে নেয় সেখানে পোশাকই বা সহজ বা হাল্কা হবে না কেন?

অনুপম চট্টোপাধ্যায়ের কাছে এ বারের পুজোর সাজ নিয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি বুঝিয়ে দেন,‘‘এখন আর পুজোর জন্য আলাদা করে খুব লাউড, ড্রেসি পোশাক কেউ পরতে চাইছে না। সবাই রেগুলার ওয়ারের উপরে এবং অবশ্যই হ্যান্ডলুমের ওপর জোর দিচ্ছেন। যে পোশাক অনেক কাল সাস্টেন করবে সেই পোশাকই এখন পুজোর পোশাক।’’

Advertisement

শাড়ির ক্ষেত্রে হ্যান্ডলুমের শাড়ির কথা তো বলছেন অনুপম। কিন্তু তার সঙ্গে লুজ ফিটেড ব্লাউজ দিয়ে চমক আনছেন তিনি। ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের ক্ষেত্রে যেমন হলদে সাদা মন্দির পাড়ের হ্যান্ডলুমের সঙ্গে লুজ ফিটেড ব্লাউজ দিয়ে চমক এনেছেন অনুপম।

আরও পড়ুন: রেড হট থেকে ট্যান, পুজোয় রঙিন ব্যাগে হয়ে উঠুন ট্রেন্ডি​

কাট আর স্টাইলেও আছে নানা চমক, যেমন সিম্পল ব্লাউজ, হ্যান্ডলুম শাড়ির সঙ্গে একটা লং জ্যাকেট চাপিয়ে নিতে বলছেন অনুপম, ‘‘ধরুন সাদা আর গ্রে রঙের হ্যান্ডলুম শাড়ি পরলেন, সঙ্গে পিঙ্ক রঙের জ্যাকেট নিলেন। আপনার আবেদনটাই বদলে যাবে।’’

আসলে সব কিছু একসঙ্গে পরে ফেলার সময় কিন্তু দুর্গাপুজো নয়। ‘‘সিম্পল শাড়ি, হাল্কা মেকআপের সঙ্গে টিম আপ করুন ভারী সিলভার গয়না দিয়ে। ব্যস, আর কিছু করা নিষ্প্রয়োজন। আবেদন এই সাজ থেকেই ঠিকরে পড়বে।’’

সাজবদলের পুজো পালায় এ বার সোনার গয়না বা কুন্দন নয়। রূপোর গয়না জায়গা করে নিয়েছে।



আরও পড়ুন: ট্রেন্ডের পিছনে ছুটে সব পরে ফেলে ‘ক্রিসমাস ট্রি’ হয়ে উঠবেন না যেন!​

‘‘হাতে প্রচুর চুড়ি পরলেন সঙ্গে লেয়ারড হ্যান্ডলুম ড্রেস। সব সময় তো পুজোর মধ্যে হেয়ার ড্রেসার পাওয়া যায় না, তাই চুলটা একদম সিম্পল রেখে একটা বড়জোর নট বাঁধলেন। আপনি রেডি,’’নিজের ভাবনা বুঝিয়ে দিলেন অনুপম। ড্রেপ ড্রেস, মিড লেন্থ টিউনিকের এ বার খুব চল। তবে শরীরের গড়ন বুঝে সেগুলো পড়ুন বলে পরামর্শ দিচ্ছেন অনুপম।

মোটা চেহারার জন্য লুজ ফিট ড্রেসের কথা ভেবেছেন, সঙ্গে ভারী কোনও সিলভার গয়না। মোটাদের জন্য রঙের ব্যবহার খুব জরুরি। ‘‘ডার্কার শেড, যেমন গ্রে, ব্রাউন, অলিভ, প্যাস্টেল শেড ভারী চেহারাকে সুন্দর টোন করে,’’যোগ করলেন অনুপম।



আরও পড়ুন: পুজোয় জেল্লাদার ত্বক চান! এখন থেকেই প্রস্তুতি নিন​

ছেলেদের জন্যও ভিন্ন রাস্তা ভেবেছেন অনুপম।

‘‘প্রিন্টেড পাতিওয়ালার সঙ্গে সলিড রঙের কুর্তি এ শহরে কিন্তু আমি প্রথম নিয়ে এসেছি।’’এছাড়াও ইক্কত বা কলমকরির প্যান্ট-কুর্তা এ বারের ছেলেদের ফ্যাশন স্টেটমেন্টকে আরও উজ্জ্বল করবে বলে নিশ্চিত অনুপম।

অনুপমের ফ্যাশন স্টোর ‘ওয়ারসি’তে ঋতুপর্ণা, শিবপ্রসাদ, জয়া আহসান থেকে প্রিয়ংকা সরকার— সকলেই ভিড় জমাচ্ছেন। ‘‘আসলে ফ্যাশন শুধু পোশাক অনুযায়ী হয় না। নিজের ব্যক্তিত্ব অনুযায়ী কেবলমাত্র ট্রেন্ডে গা ভাসিয়ে না দিয়ে, সেলেবদের কপি না করে সাজুন,’’বলছেন অনুপম।

পুজোয় অবশ্যই করবেন

ফ্যাব্রিক ভেবেচিন্তে বাছুন। পুজোর মেজাজ বুঝে হ্যান্ডলুম বা কটনের দিকে গেলেই ভাল।

একটু ভারী চেহারা যাদের তাঁরা অবশ্যই বডি শেপার পরে পোশাক পরুন।

রোগারা হাল্কা শেডে আর মোটারা ডার্ক শেড পরুন।

পোশাকের আগে সবচেয়ে জরুরি ফিটেড লঁজারি পরা। সেদিকে প্লিজ নজর রাখুন।

পুজোর সময় দৌড়ঝাঁপ থাকে। তাই প্রচুর জল খান

নিজের পছন্দমতো সুগন্ধি, লিপ বাম, নুড লিপ্সটিক আর কাজল রাখুন।

পুজোয় অবশ্যই করবেন না

অতিরিক্ত মেক আপ

সেলিব্রিটিদের কপি করা



Tags:

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement