POWERED BY
CO-POWERED BY
Back to
Advertisment

Bhaiphota Recipe: এ বারের ভাইফোঁটায় নিজে হাতেই বানিয়ে ফেলুন মাছের কাটলেট

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ৩১ অক্টোবর ২০২১ ১৬:০৩

ভাইফোঁটা বা রাখির মতো পারিবারিক অনুষ্ঠানগুলিতে মাছের কাটলেট বেশ জনপ্রিয় খাবার।

ভাইফোঁটার উদ্‌যাপন আর ভাই-বোনের মধ্যে সীমিত নেই। ক্রমবর্ধমান বিচ্ছিন্নতার সময়ে বছরে যে ক’টি উপলক্ষ পাওয়া যায় একসঙ্গে হওয়ার, তার মধ্যে ভাইফোঁটা নিঃসন্দেহে অন্যতম। আর এত দিন পরে সকলে মিলে একত্রিত হওয়া মানেই হই-হুল্লোড়, আড্ডা। তা কি আর ভাল-মন্দ খাওয়াদাওয়া ছাড়া জমে?

ভাইফোঁটা বা রাখির মতো পারিবারিক অনুষ্ঠানগুলিতে মাছের কাটলেট বেশ জনপ্রিয় খাবার। এ বার ভাইফোঁটায় নিজে হাতেই বানিয়ে ফেলুন মাছের কাটলেট। ভাইয়ের মন জয় করা যাবে। আর তার সঙ্গে জমিয়ে খাওয়াও হবে! কী ভাবে বানাবেন মাছের কাটলেট?

উপকরণ:

Advertisement

১) বড় মাছ (রুই/কাতলা/ভেটকির মধ্যে যে কোনও): ৬ টুকরো

২) সিদ্ধ করা আলু: ১টি

৩) সয়া সস: ১ টেবিল চামচ

৪) লেবু: ১ চা চামচ

৪) টমেটো সস: ২ চা চামচ

৫) ধনে পাতা: ২ চা চামচ

৬) ডিম: ১টি

৭) লবণ: স্বাদ মতো

৮) গোলমরিচের গুঁড়ো: ১ চা চামচ

৯) কর্নফ্লাওয়ার: ১ টেবিল চামচ

১০) কালো জিরে: ১/২ চা চামচ

১১) চাট মশলা: ১/২ চা চামচ

১২) তেল: পরিমাণ মতো

ভাই-বোন ও প্রিয়জনের সঙ্গে আনন্দ করে হইহই করে খান সাধের কাটলেট।

ভাই-বোন ও প্রিয়জনের সঙ্গে আনন্দ করে হইহই করে খান সাধের কাটলেট।


প্রণালী:
প্রথমে মাছের টুকরোগুলি একটি পাত্রে নিয়ে, প্রয়োজন মতো জল ও নুন দিয়ে সেদ্ধ করুন। সেদ্ধ হয়ে গেলে মাছগুলি থেকে তেল বাদ দিয়ে ও কাঁটা বেছে ভর্তা বানিয়ে নিতে হবে। পরের ধাপে অন্য একটি পাত্রে ভর্তা নিয়ে তার মধ্যে একে একে দিতে হবে আলুসেদ্ধ, সয়া সস, লবণ, টমেটো সস, ধনেপাতা, কালো জিরে, চাট মশলা, গোলমরিচের গুঁড়ো ও লেবুর রস দিয়ে দিন। এ বার সব ক’টি উপকরণ ভাল করে মাখিয়ে নিন। অন্য একটি পাত্রে ডিম ফেটিয়ে তাতে কর্নফ্লাওয়ার ঢেলে এক সঙ্গে মিশিয়ে নিন। ডিম ও কর্নফ্লাওয়ারের মিশ্রণটি আগের মিশ্রণে ঢেলে দিন। সব উপাদান ভাল করে চটকে মেখে নিন। এ বার হাতে সামান্য তেল নিয়ে মিশ্রণটি থেকে কাটলেটের আকারে এক একটি টুকরো কেটে তা শুকনো কর্নফ্লাওয়ারে মাখিয়ে নিন। তার পর একটি পাত্রে তেল গরম করে তার মধ্যে কাটলেটগুলি ছাড়ুন। ডুবো তেলেও ভাজতে পারেন, আবার অল্প তেলেও ভেজে নিতে পারেন। এক পিঠ ভাজা হয়ে গেলে উল্টে দিয়ে অন্য পিঠও ভেজে নিন। মাছ আগে থেকেই সেদ্ধ করা ছিল বলে বেশিক্ষণ ভাজার প্রয়োজন হবে না। সোনালি রং চলে এলেই নামিয়ে নিন। মাছের কাটলেট তৈরি! ভাই-বোন ও প্রিয়জনের সঙ্গে আনন্দ করে হইহই করে খান সাধের কাটলেট।

Advertisement