Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

আমেরিকার সিদ্ধান্ত নিয়ে শঙ্কা কমায় চাঙ্গা সেনসেক্স

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ০২:৩৩

মার্কিন শীর্ষ ব্যাঙ্ক ফেডারেল রিজার্ভের সুদ বাড়ানোর সম্ভাবনা ঘিরে আশঙ্কায় দু’দিন ঝিমিয়ে থাকার পরে বুধবার কিছুটা হলেও বাড়ল সূচক। শেয়ার বাজার মহলের আশা ছিল, মার্কিন শীর্ষ ব্যাঙ্কের চেয়ারপার্সন জ্যানেট ইয়েলেন দীর্ঘ বৈঠক শেষে সুদ বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিলেও তা নামমাত্র বাড়বে। ফলে বিদেশি আর্থিক সংস্থাগুলি ভারতের বাজারে লগ্নিতে উৎসাহ হারিয়ে ফেলবে না বলেই ইঙ্গিত দিয়েছেন লেনদেনকারীরা। তবে ফেডারেল রিজার্ভের সিদ্ধান্তে বাজারের প্রতিক্রিয়া ধরা পড়বে আগামী কাল। উল্লেখ্য, মন্দার সময় থেকেই অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে সুদের হার শূন্যের কাছাকাছি বেঁধে রেখেছে আমেরিকা।

বুধবার সাধারণ ভাবে চাঙ্গা ছিল এশীয় বাজারও, যার প্রভাব পড়ে ভারতে। চিনের শীর্ষ ব্যাঙ্ক সে দেশের অর্থনীতির হাল ফেরাতে বাণিজ্যিক ব্যাঙ্কগুলিকে ৮১০০ কোটি ডলার জোগানোর খবরেই প্রাণ ফিরে প্রায় এশীয় বাজার। বুধবার ১৩৯ পয়েন্ট উঠে দিনের শেষে সেনসেক্স দাঁড়ায় ২৬,৬৩১.২৯ অঙ্কে। পাশাপাশি, নিফ্টিও এ দিন প্রায় ৪৩ পয়েন্ট বেড়ে ছুঁয়েছে ৭,৯৭৫.৫০ পয়েন্ট।

ডলারের সাপেক্ষে টাকার দামও বুধবার বেড়েছে ১৩ পয়সা। বাজার বন্ধের সময়ে প্রতি ডলারের দাম দাঁড়ায় ৬০.৯২ টাকা। ফেডারেল রিজার্ভের সিদ্ধান্তের আগেই এ দিন রফতানিকারীদের ডলার বিক্রির হিড়িক পড়ে যায়। এর পরে টাকার দাম আরও পড়ে যেতে পারে আশঙ্কা করেই ডলার বেচে তাঁরা লাভের টাকা ঘরে তোলেন বলে বৈদেশিক মুদ্রার বাজার সূত্রের খবর।

Advertisement

শেয়ার বাজারে লগ্নিকারীদের ধারণা ছিল মার্কিন অর্থনীতি কিছুটা ঘুরে দাঁড়ানোয় এবং কর্মসংস্থানের সম্ভাবনা আগের তুলনায় ভাল হওয়াতেই সুদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিতে পারে মার্কিন শীর্ষ ব্যাঙ্ক। সে ক্ষেত্রে বিদেশি আর্থিক সংস্থাগুলি ভারতের শেয়ার বাজারে লগ্নিতে আর ততটা উৎসাহী না-ও হতে পারে। নিজেদের দেশেই সুদ বাড়লে তারা ভবিষ্যতে ভারত থেকে লগ্নি তুলে নেবে বলে আশঙ্কা ছিল বাজারের। অথচ ভারতের শেয়ার বাজারের উত্থানের পিছনে দীর্ঘ দিন ধরেই বিদেশি লগ্নি সংস্থাগুলি মূল চালিকাশক্তি।

বুধবার সেই আতঙ্কই কাটিয়ে ওঠে বাজার। কারণ, মার্কিন শীর্ষ ব্যাঙ্কের বৈঠক এগোনোর সঙ্গে সঙ্গে ইঙ্গিত মেলে যে, এই মুহূর্তে ত্রাণ প্রকল্প থেকে পুরোপুরি সরবে না আমেরিকা। তাই বুধবার সূচকের উত্থানে মূলত নেতৃত্ব দেয় ইনফোসিসের মতো রফতানি নির্ভর সংস্থাগুলি। ত্রাণ প্রকল্পের হাত ধরে আমেরিকা-ইউরোপে ভারতীয় রফতানি পণ্যের বাজার ভালই থাকবে বলে আশা রফতানিকারীদের। এতে ভর করেই বাড়ে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলির শেয়ার।

আরও পড়ুন

Advertisement