Advertisement
২৯ জানুয়ারি ২০২৩

স্পাইসজেটের এক টাকার টিকিটে আপত্তি নিয়ন্ত্রকের, মানতে নারাজ সংস্থা

এয়ার ডেকান চালু করে ভারতে প্রথম বার সস্তার উড়ান পরিষেবা নিয়ে আসার সময়ে এক টাকায় টিকিট বেচার কথা ঘোষণা করেছিলেন ক্যাপ্টেন গোপীনাথ। খবর ছড়াতেই হুড়োহুড়ি পড়ে গিয়েছিল। কলকাতা বিমানবন্দরেই ডেকানের কাউন্টারে হাত গলিয়ে দিয়েছিলেন এক যাত্রী। ২০ টাকার নোট বাড়িয়ে চেয়ে বসেছিলেন ২০টি টিকিট।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০২ এপ্রিল ২০১৪ ০২:২৬
Share: Save:

এয়ার ডেকান চালু করে ভারতে প্রথম বার সস্তার উড়ান পরিষেবা নিয়ে আসার সময়ে এক টাকায় টিকিট বেচার কথা ঘোষণা করেছিলেন ক্যাপ্টেন গোপীনাথ। খবর ছড়াতেই হুড়োহুড়ি পড়ে গিয়েছিল। কলকাতা বিমানবন্দরেই ডেকানের কাউন্টারে হাত গলিয়ে দিয়েছিলেন এক যাত্রী। ২০ টাকার নোট বাড়িয়ে চেয়ে বসেছিলেন ২০টি টিকিট। স্বাভাবিক ভাবেই তিনি তা পাননি। কারণ, টিকিটের মূল দাম এক টাকা হলেও, কর ইত্যাদি যোগ করে তা দাঁড়ায় কিছুটা বেশি। কিন্তু ওই যাত্রী টিকিট না-পেলেও দেশ জুড়ে রীতিমতো হইচই ফেলে দিয়েছিল গোপীনাথের সেই ব্যবসায়িক কৌশল। বাজার ছেয়ে যেতে শুরু করে সস্তার উড়ান পরিষেবায়। বহু দিন পরে মঙ্গলবার সেই এক টাকার টিকিট আনার কথা ঘোষণা করল স্পাইসজেট। কিন্তু দিনভর তা নিয়ে তৈরি হল বিতর্ক। কারণ, এ দিনই এর কড়া সমালোচনা করেছে দেশের অসামরিক বিমান পরিবহণ নিয়ন্ত্রক ডিজিসিএ। এমনকী নির্দেশ দিয়েছে অবিলম্বে এই প্রকল্প বন্ধ করার।

Advertisement

এ দিন স্পাইসজেটের দাবি, ১ থেকে ৩ এপ্রিলের মধ্যে এক টাকায় টিকিট কাটার এই সুবিধা মিলবে। আর তা দিয়ে বিমানে চড়া যাবে আগামী জুলাই থেকে ২০১৫-র ২৮ মার্চের মধ্যে। কর ইত্যাদি যোগ হয়ে (দূরত্ব অনুযায়ী যা বিভিন্ন) দাম দাঁড়াবে প্রায় ৪০০ টাকা।

প্রকল্প ঘোষণার পরে-পরেই অবশ্য তার কড়া সমালোচনা করে ডিজিসিএ। এমনকী অবিলম্বে এই টিকিট বিক্রি বন্ধের নির্দেশ দেয় তারা। তাদের অভিযোগ, লোভ দেখিয়ে যাত্রীদের ভুল পথে চালিত করা হচ্ছে। তাদের প্রশ্ন, যে -সংস্থা ১৭১ কোটি টাকার লোকসান দেখাচ্ছে, তারা কী ভাবে এত কমে টিকিট বিক্রি করে? কেন তারা এই রাস্তায় হাঁটছে, তা জানতে চেয়ে সংস্থাকে চিঠিও দেয় তারা। উত্তরে অবশ্য স্পাইসজেটের দাবি, দুনিয়া জুড়েই এ ধরনের কৌশল অবলম্বন করে সস্তার বিমান পরিষেবা সংস্থাগুলি। ভারতেও এ ধরনের সুযোগ আগে দেওয়া হয়েছে।

তবে ডিজিসিএ যা-ই বলুক, এ দিন স্পাইসজেটের এই ঘোষণার পরে কার্যত মাথা খারাপের জোগাড় হয় ট্রাভেল এজেন্টদের। সংস্থার ওয়েবসাইট বসে যায়। বিকেলের দিকে টিকিট কাটতে গিয়েও সাইটে ঢোকা যায়নি। ট্রাভেল এজেন্ট ফেডারেশনের কর্তা অনিল পঞ্জাবির দাবি, “এ দিন একজন এসে কলকাতা-চেন্নাই রুটে যাতায়াতের ৪টি টিকিট কেটেছেন। চার জনের চেন্নাই যাতায়াতের খরচ মাত্র ৪৩০০ টাকা!” শুধু তা-ই নয়। যাঁরা সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে বেড়াতে যাওয়ার জন্য বেশি দামে বিমানের টিকিট কেটে রেখেছিলেন, তাঁদেরও অনেকে এ দিন চড়াও হন ট্রাভেল এজেন্টদের দফতরে। দাবি জানান, বেশি টাকার টিকিট বাতিল করে নতুন প্রকল্পে এক টাকার টিকিট কাটার। অনেকে বাতিল করতে চেয়েছেন ট্রেনের টিকিটও।

Advertisement

অনিলবাবুর কথায়, “এ ধরনের প্রকল্প ঘোষণা হলে কেউ কেউ ভাবেন বিমানের সমস্ত টিকিটই বুঝি এক টাকার! কিন্তু আসলে দেড়শো আসনের বিমানে এই সুবিধা হয়তো মিলবে ৪-৫টি টিকিটে। তা-ও সব উড়ানে নয়।” স্পাইসজেট জানিয়েছে, এক টাকার ছাড়াও ‘আগে এলে আগে পাবে’ ভিত্তিতে কিছু টিকিট দেওয়া হবে ৭৯৯ ও ১৪৯৯ টাকায়। এ ক্ষেত্রেও কর অবশ্য আলাদা। সিওও সঞ্জীব কপূরের দাবি, গত বার সস্তার টিকিটে বাজারে দারুণ সাড়া মিলেছিল। সেই অভিজ্ঞতা মাথায় রেখেই এই ঘোষণা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.