Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

শিল্প সঙ্কোচনের পর মূল্যস্ফীতি, জোড়া ধাক্কায় পড়ল সেনসেক্স

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই ১৬ এপ্রিল ২০১৪ ০৩:৫০

শিল্পোৎপাদন সরাসরি কমার পর এ বার ফের মূল্যবৃদ্ধির মাথাচাড়া দেওয়া। মাত্র তিন দিনের ব্যবধানে এই জোড়া ধাক্কায় মঙ্গলবার ১৪৪.০৩ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স। লেনদেনের শেষে থিতু হল ২২,৪৮৪.৯৩ অঙ্কে। সামান্য হলেও পড়ল টাকা। এ দিন ডলারের সাপেক্ষে তার দর কমলো ছ’পয়সা। মার্কিন মুদ্রার দাম দাঁড়াল ৬০.২৩ টাকায়।

গত শুক্রবার কেন্দ্রের প্রকাশিত পরিসংখ্যানে দেখা গিয়েছিল, ফেব্রুয়ারিতে দেশে শিল্পোৎপাদন সঙ্কুচিত হয়েছে ১.৯%। আর এ দিন ফের কেন্দ্রেরই দেওয়া তথ্যে দেখা যাচ্ছে যে, মার্চে সার্বিক মূল্যবৃদ্ধির হার পৌঁছে গিয়েছে ৫.৭ শতাংশে। যা পূর্বাভাসের তুলনায় বেশি তো বটেই, তিন মাসের মধ্যেও সর্বোচ্চ।

বিশেষজ্ঞদের মতে, মঙ্গলবার এই জোড়া ফলাতেই বিদ্ধ হয়েছে সেনসেক্স। কারণ, শিল্পোৎপাদন সরাসরি কমার পর সুদ হ্রাসের পথ প্রশস্ত করার দাবিতে ফের সরব হয়েছিল শিল্পমহল। রিজার্ভ ব্যাঙ্কের অবিলম্বে এই রাস্তায় হাঁটা উচিত বলে বিবৃতি দিয়েছিল বণিকসভাগুলি। কিন্তু মূল্যবৃদ্ধির পারদ ফের উপরের দিকে চড়তে থাকার অর্থ সেই সম্ভাবনা ফিকে হওয়া। কারণ, মূল্যস্ফীতির হার চড়া থাকলে শীর্ষ ব্যাঙ্কের সুদ ছাঁটাইয়ের সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে। বরং উল্টে তা বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা। আর এই কারণেই এ দিন সূচক এক ধাক্কায় ১৪৪ পয়েন্ট খুইয়েছে বলে মনে করছেন তাঁরা। এই বিশ্লেষণের সঙ্গে মিলে গিয়েছে এ দিনের লেনদেনের গতি-প্রকৃতিও। দেখা যাচ্ছে, যে সব শিল্পের সঙ্গে সুদের যোগ রয়েছে (ব্যাঙ্ক, গাড়ি, আবাসন, নির্মাণ ইত্যাদি), তাদেরই শেয়ার দর পড়েছে সব থেকে বেশি।

Advertisement

অথচ দিনের শুরুটা কিন্তু এ ভাবে হয়নি। শিল্প সঙ্কুচিত হওয়ার হতাশাকে পাশে সরিয়ে রেখেও তরতরিয়ে উঠতে শুরু করেছিল সেনসেক্স। মূলত ইনফোসিসের প্রত্যাশা ছাপানো ফলে ভর করে। নারায়ণমূর্তির সংস্থাটির পাশাপাশি শেয়ারের দর বাড়ছিল টিসিএস, উইপ্রোর মতো তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থারও। কিন্তু দিনের শেষে দেখা গেল, তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্র এ দিন শেয়ারে তাদের ‘সুসময়’ ধরে রাখতে পারলেও সার্বিক ভাবে বাজারকে তা ঠেলে তুলতে পারেনি।

আরও পড়ুন

Advertisement