পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক (পিএনবি) কেলেঙ্কারির জেরে ঢালাও ব্যাঙ্ক বেসরকারিকরণের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। শনিবার রাজধানীতে একটি  সভায় তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, এই মুহূর্তে এই বিষয়টি নিয়ে রাজনৈতিক স্তরে ঐকমত্য সম্ভব নয়।

১১,৪০০ কোটি টাকার পিএনবি-কাণ্ডের পরিপ্রেক্ষিতে শিল্পমহল ও বেশ কিছু বণিকসভার তরফে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক বেসরকারিকরণের দাবি উঠেছে। জেটলি বলেন, ‘‘সন্দেহ নেই, এটি একটি বড় চ্যালেঞ্জ। কিন্তু এর জন্য রাজনৈতিক স্তরে বড় ধরনের মতৈক্য চাই। প্রয়োজন ব্যাঙ্কিং নিয়ন্ত্রণ আইন সংশোধনও। মনে হয়, বেসরকারিকরণের ধারণা রাজনৈতিক স্তরে গ্রহণযোগ্য হবে না।’’

প্রসঙ্গত, সিআইআই, ফিকি, অ্যাসোচ্যামের মতো দেশের প্রথম সারির বণিকসভাগুলি ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকারকে ব্যাঙ্কের মালিকানা ৫০ শতাংশের নীচে নামিয়ে আনার কথা বলেছে। বেশির ভাগ ব্যাঙ্ককে বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার পক্ষে রয়েছে শিল্পমহলের একটি বড় অংশ।

তারা মনে করে, দু’-তিনটি ব্যাঙ্ক রাষ্ট্রের হাতে থাকাটাই যথেষ্ট। শিল্পপতি আদি গোদরেজ, রাহুল বজাজও ব্যাঙ্ক বেসরকারিকরণের পক্ষে সওয়াল করেছেন। এই পরিপ্রেক্ষিতে গোদরেজের দাবি, ‘‘দেশের পক্ষে এটা ভালই হবে। কারণ, বেসরকারি ব্যাঙ্কগুলিতে কেলেঙ্কারির ঘটনা যৎসামান্য, এমনকী নেই বললেই চলে।’’