দূষণ কমাতে বহু দিন ধরেই ২০ বছরের পুরনো বাণিজ্যিক গাড়ি বাতিলের দাবি জানিয়ে আসছে শিল্প। অবশেষে কেন্দ্র তাতে নীতিগত ভাবে সায় দেওয়ায় খুশি তারা। সংস্থাগুলির  মতে, এতে এক দিকে যেমন দূষণ কমবে, তেমনই আগামী দিনে বাড়বে নতুন  গাড়ির বিক্রিও।

গাড়ি শিল্পের সংগঠন সিয়ামের কর্তা সুগত সেন শনিবার দিল্লি থেকে ফোনে বলেন, ‘‘দূষণের পাশাপাশি গাড়ির সুরক্ষার দিকটিও  গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু পুরনো গাড়ির ক্ষেত্রে এতে তেমন নজরদারি নেই। আকর্ষণীয় কোনও নীতি আনা হলে বাণিজ্যিক গাড়ির ব্যবসার সুযোগও বাড়বে।’’ টাটা মোটরসের এক মুখপাত্রের মতে, এই নীতি পুরনো গাড়ি বাতিল করে নতুন কেনায় উৎসাহ দেবে। একমত এই শিল্পের আরও অনেকেই। যদিও নতুন এই নীতি নিয়ে কেন্দ্র ঠিক কী ভাবছে তা এখনও স্পষ্ট নয়।

কেন্দ্র জানিয়েছে, ২০ বছরের বেশি পুরনো বাণিজ্যিক গাড়ি ২০২০ সালের ১ এপ্রিল থেকে নিষিদ্ধ হতে চলেছে। মিলেছে নীতিগত সায়। দূষণ কমানোর লক্ষ্যে নয়া নীতিতে গাড়ির আয়ু ২০ বছরে বেঁধে দেওয়া হয়েছে। এক কর্তা বলেন, ‘‘বিদেশে নিয়মিত গাড়ি পরীক্ষা হয়। ভারতে তা অনেক শিথিল। তাই দূষণ বাড়ে।’’

শিল্প মহলের অবশ্য আশা, এ বার এই নীতি চালু হলে নতুন ও কিছুটা কম পুরনো হাতফেরতা গাড়ির বিক্রি বাড়বে। সিয়াম সূত্রে খবর, পুরনো গাড়ি বাতিলে উৎসাহ দিতে কী সুবিধা জরুরি, তা বুঝতে ইতিমধ্যেই  বহু প্রস্তাব নিয়ে আলোচনার টেবিলে বসা হয়েছে। কেন্দ্র এখন কোন পথে হাঁটে, সেটাই দেখার।