ফেসবুকের পথেই কি হাঁটতে চলেছে আলিবাবা? এ দেশে বিনামূল্যে ইন্টারনেট পরিষেবা চালু করতে চায় চিনা ওই সংস্থা। আগেও এ ধরনের পরিষেবা চালু করার চেষ্টা করেছিল ফেসবুক। শেষমেশ নিরপেক্ষ ইন্টারনেট পরিষেবা (নেট নিউট্রালিটি)-র সপক্ষে জোরালো সওয়াল হওয়ায় তা থেকে পিছিয়ে আসে ফেসবুক। তবে ফেসবুকের মতো একক ভাবে না হলেও দেশীয় বাজারের বিভিন্ন টেলিকম সংস্থার সঙ্গে কথাবার্তা শুরু করেছে তারা।

সংস্থার অন্যতম প্রেসিডেন্ট জ্যাক হুয়াং জানিয়েছেন, টেলিকম সংস্থা ছাড়াও ওয়াই-ফাই প্রোভাইডারদের সঙ্গে আলোচনা চলছে। তিনি বলেন, “ব্যবহারকারীদের কম দামে ইন্টারনেট পরিষেবা দেওয়া ছাড়া দ্রুত গতির কানেক্টিভিটির দিকেও জোর দিচ্ছি আমরা। এমনকী, বিনামূল্যে ইন্টারনেটেরও চিন্তা-ভাবনা চলছে।” তবে এ সবই এখন পরিকল্পনার স্তরে রয়েছে। দেশীয় বাজারে আলিবাবা শেষমেশ কার হাত ধরবে তা ঠিক হয়নি। গোটা ভারতে নয়, যে সব রাজ্যে কানেক্টিভিটির সমস্যা রয়েছে সে সব রাজ্যেই পা বাড়ানোর কথা ভাবছে আলিবাবা। জ্যাক বলেন, “দ্রুত গতির নেট পরিষেবা দিতে এ সব রাজ্যের গ্রাহকদের চাহিদা নিয়ে একটি সমীক্ষা করা হবে।”

আরও পড়ুন

নগদ লেনদেনে খরচ বাড়ানো শুরু ব্যাঙ্কের

এর আগে এ দেশে বিনামূল্যে ইন্টারনেট পরিষেবা দিতে ফ্রি বেসিক প্রকল্পে বিস্তর টাকা ঢেলেছিল ফেসবুক। তবে নেট নিউট্রালিটির সপক্ষে সওয়ালকারীদের দাবি ছিল, তাতে বেশ কয়েকটি ওয়েবসাইট বিনামূল্যের দেখা গেলেও আদতে ইন্টারনেটের দুনিয়ার একচেটিয়া রাজত্ব করবে ফেসবুক। ফলে নেট-দুনিয়ার সকলের সমানাধিকার থাকবে না।