লোকসভা ভোটের আগে ভারতের বৃদ্ধির হার ধাক্কা খেতে পারে বলে মনে করছেন অর্থনীতিবিদের অনেকে। যা কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকারের মাথাব্যথা আরও বাড়াতে পারে বলে তাঁদের মত।

বৃহস্পতিবার তৃতীয় ত্রৈমাসিকের (অক্টোবর-ডিসেম্বর) বৃদ্ধির হার প্রকাশ করার কথা কেন্দ্রের। বিশেষজ্ঞদের পূর্বাভাস, তা ৬.৯ শতাংশে দাঁড়াতে পারে। যা মিলে গেলে এটা হবে পাঁচটি ত্রৈমাসিকে সবচেয়ে ঢিমে বৃদ্ধি। কল-কারখানায় উৎপাদন বাড়ানো ও চাষিদের অসন্তোষ নিয়ে এমনিতেই চাপে রয়েছে কেন্দ্র। কাজের সুযোগ তৈরি নিয়েও বিরোধীদের আক্রমণের মুখে পড়েছে তারা। যার জেরে ছোট চাষিদের নগদ টাকা এবং অসংগঠিত ক্ষেত্রের কর্মীদের পেনশনের মতো প্রকল্প ঘোষণা করেছে মোদী সরকার। তার উপরে বৃদ্ধি ফের নীচের দিকে মুখ নিলে কেন্দ্রের ‘রক্তচাপ’ আরও বাড়বে বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

তাঁদের একাংশ বলেন, দেশে-বিদেশে চাহিদা কমাই মূলত বৃদ্ধি ৭ শতাংশের নীচে থাকার জন্য দায়ী। তা সত্ত্বেও চিনের তুলনায় (৬.৪%) দ্রুত বৃদ্ধির তকমা ধরে রাখতে ভারতের অসুবিধা হবে না। তার উপরে ভোটের আগে খরচে রাশ টানা শেষ ত্রৈমাসিকে বৃদ্ধিকেও ধাক্কা দিতে পারে বলে মত তাঁদের। যদিও আগামী দিনে বৃদ্ধি নিয়ে আশা প্রকাশ করেছেন তাঁরা।