নতুন চাপের মুখে আইসিআইসিআই ব্যাঙ্ক এবং তার কর্ণধার চন্দা কোছর। অনিয়মের অভিযোগে এ বার তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করবে মার্কিন বাজার নিয়ন্ত্রক এসইসি। এ ছাড়া সূত্রের খবর, মরিশাস-সহ বিদেশের একাধিক নিয়ন্ত্রক সংস্থার সাহায্যও চাইতে পারে ভারতীয় তদন্ত সংস্থাগুলি।

ভিডিয়োকন গোষ্ঠীকে ঋণ মঞ্জুর নিয়ে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের সিইও চন্দার বিরুদ্ধে। নাম জড়িয়েছে চন্দার স্বামী দীপক এবং তাঁদের পরিবারের একাধিক সদস্যের। সিবিআই, সেবি ও কোম্পানি মন্ত্রকের পাশাপাশি আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কও তদন্ত শুরু করেছে। ঘটনা হল, আইসিআইসিআই আমেরিকাতেও নথিভুক্ত। সে কারণে তাদের বাজার নিয়ন্ত্রকও অভিযোগের তদন্ত শুরু করেছে। সরকারি সূত্রের খবর, সেবির কাছে তারা এ নিয়ে তথ্য চেয়েছে। সেই সব প্রশ্ন ব্যাঙ্ক, সিইও ও নোটিসপ্রাপ্ত সকলের কাছে পাঠানো হবে। ভবিষ্যতে এসইসি আরও তথ্য চাইতে পারে বলে খবর। তবে এ নিয়ে আইসিআইসিআই ব্যাঙ্ক এবং এসইসি মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

উল্লেখ্য, ভিডিয়োকনকে ২০১২ সালে ৩,২৫০ কোটি টাকা ঋণ দিয়েছিল ব্যাঙ্কটি। চন্দার বিরুদ্ধে অভিযোগ, দীপক ও তাঁর পরিবারকে কিছু সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার পরিবর্তে তা মঞ্জুরের সুযোগ করে দেন তিনি। পরে ওই ঋণের বড় অঙ্ক অনুৎপাদক সম্পদে পরিণত হয়।