পিএনবি প্রতারণা মামলায় এ বার জেরার মুখে আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের এমডি এবং সিইও চন্দা কোচার-সহ অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কের প্রধান শিখা শর্মা। মঙ্গলবার দুর্নীতিদমন শাখার তরফ থেকে ওই দুই ব্যাঙ্কের শীর্ষ কর্তাকে ডেকে পাঠানো হয়েছে।

চন্দা কোচার এবং শিখা শর্মা— দু’জনকেই এসএফআইও (সিরিয়াস ফ্রড ইন্ডভেস্টিগেশন অফিস)-র মুম্বই শাখায় হাজিরা দিতে বলা হয়েছে।

মহুল চোক্সীর গীতাঞ্জলি গ্রুপ-কে ৩২৮০ কোটি টাকার মূলধনী ঋণ দিয়েছিল ৩১টি ব্যাঙ্ক। ওই ব্যাঙ্ক কনসর্টিয়ামের নেতৃত্বে ছিল আইসিআইসিআই ব্যাঙ্ক। এর মধ্যে গীতাঞ্জলি গ্রুপকে ৪০৫ কোটি টাকা ঋণ দেয় চন্দা কোচারের ব্যাঙ্ক। তবে সংবাদ সংস্থা সূত্রের খবর, ওই শীর্ষস্তরের ব্যাঙ্কারদের শুধুমাত্র জিজ্ঞাসাবাদের জন্যই হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। এখনই তাঁদের বিরুদ্ধে কোনও রকম অভিযোগ আনছেন না দুর্নীতিদমন শাখার আধিকারিকেরা।

আরও পড়ুন: পিএনবি কাণ্ডে ধৃত আরও চার

আরও পড়ুন: নীরব-দায় মনমোহনের: বিজেপি

পিএনবি মামলায় এ দিন সকালে গীতাঞ্জলি গ্রুপের ভাইস প্রেসিডেন্ট বিপুল চিতালিয়াকে আটক করেছে সিবিআই। সিবিআইয়ের এক শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছেন, চিতালিয়াকে এ দিন মুম্বই বিমানবন্দরে আটক করা হয়। এর পর তাঁকে বান্দ্রা-কুরলা কমপ্লেক্সে সিবিআইয়ের শাখায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক (পিএনবি) প্রতারণা মামলায় তাঁর ভূমিকাও খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন ওই আধিকারিক।