জাল নথি দেখিয়ে ব্যাঙ্ক থেকে ৫০ কোটি টাকা ঋণ নেওয়ার চেষ্টার অভিযোগে মণিপুরের বাসিন্দা চার যুবককে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃতদের নাম যদুমণি সিংহ, রবি টিব্রেওয়াল, ব্রনসন সাগোলসেম ও দেবাস সিংহ।

পুলিশ সূত্রের খবর, ওই চার জন দিন কয়েক আগে বেহালার বীরপাড়ায় একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের শাখায় গিয়ে মোটা অঙ্কের ঋণের আবেদন করে। তাদের কথায় অসঙ্গতি থাকায় ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের সন্দেহ হয়। তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, গত মঙ্গলবার যুবকেরা ফের একই কায়দায় ওই রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কেরই নিউ আলিপুর শাখায় গিয়ে ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে। পুলিশ জানিয়েছে, প্রায় ৫০ কোটি টাকা ঋণ চেয়ে তারা ব্যাঙ্কে জাল নথি জমা দেয়। ওই শাখার কর্মীরাও তাদের কথায় অসঙ্গতি দেখে পুলিশকে জানান। পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে। ধৃতদের আদালত ১৯ অগস্ট পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেয়।

জেরা করে পুলিশের অনুমান, জালিয়াতি করে ঋণ নিতে ভিন্ রাজ্যে এসেছে এরা। চক্রে আরও অনেকে রয়েছে বলে সন্দেহ পুলিশের। এক পুলিশকর্তা বলেন, ‘‘ভিন্ রাজ্য থেকে আসা যুবকদের ব্যাপারে শহরের প্রতিটি ব্যাঙ্ককে সতর্ক করেছি। ঘটনায় আরও কিছু নাম উঠে এসেছে। তাদের খোঁজ চলছে।’’ নিউ আলিপুরে ব্যাঙ্কের ওই শাখার ম্যানেজার নিরুপম দাস পুলিশকে লিখিত অভিযোগে জানান, ওই চার যুবক ঘণ্টাখানেক ধরে চোস্ত ইংরেজিতে কথা বলছিলেন, তাতে প্রথমে তাঁর সন্দেহ হয়নি। হঠাৎই দেখেন, তাদের দেওয়া একটি চেক জাল। তখনই পুলিশকে খবর দেন।