• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

জল জমছে কেন, জানতে যৌথ পরিদর্শন বিধাননগরে

Chinar Park
বৃষ্টির জমা জলে ঢেউ উঠেছে চিনার পার্কে।—ফাইল চিত্র।

ভিআইপি রোড থেকে শুরু করে বিধাননগর পুরসভার একাধিক ওয়ার্ডে বৃষ্টিতে দীর্ঘ সময় ধরে জল জমে থাকে। দীর্ঘদিনের এই সমস্যার উৎস খুঁজতে বৃহস্পতিবার হিডকো এবং বিধাননগর পুরসভা যৌথ ভাবে বিভিন্ন জায়গা পরিদর্শন করে। প্রাথমিক ভাবে খাল পরিষ্কার, পাম্পিং স্টেশন ও কম্প্যাক্টর তৈরির পরিকল্পনা করা হয়েছে।

হিডকো সূত্রে খবর, সুসংহত পরিকল্পনা তৈরি করতে পূর্ত ও সেচ দফতর, বিধাননগর পুরসভা, নিউ টাউন কলকাতা ডেভেলপমেন্ট অথরিটি ও হিডকো একসঙ্গে বৈঠক করবে।

বৃহস্পতিবার হিডকোর চেয়ারম্যান দেবাশিস সেন, বিধাননগর পুরসভার মেয়র পারিষদ দেবাশিস জানা-সহ দুই প্রশাসনের প্রতিনিধিরা বাবলাতলা থেকে শুরু করে একটি শপিং মল সংলগ্ন এলাকা পরিদর্শন করেন। হিডকোর চেয়ারম্যান জানান, জমা জলের সমস্যা মেটাতে ওই শপিং মল সংলগ্ন এলাকায় খাল পরিষ্কার করতে হবে। সেখানে যাতে আবর্জনা না পড়ে, তার ব্যবস্থা করতে হবে। প্রাথমিক ভাবে এমন পরিকল্পনা করা হয়েছে, ড্রেনেজ পাম্পিং স্টেশন করবে হিডকো। তার পরে আধিকারিক ও ইঞ্জিনিয়ারেরা পরিদর্শন করে জল জমার কারণ কারিগরি দিক থেকে বিশ্লেষণ করবেন। তার পরে বিভিন্ন দফতর একত্রে বসে পর্যালোচনা করে পরিকল্পনা তৈরি করবে।

তবে শুধু জল জমার সমস্যাই নয়, নিউ টাউন ও বিধাননগরের সীমান্ত অংশে আবর্জনা অপসারণের সমস্যা সমাধানে একটি কম্প্যাক্টর বসানোর পরিকল্পনাও করা হয়েছে।

সম্প্রতি বৃষ্টিতে ভিআইপি রোডে বাগুইআটি, হলদিরাম, কৈখালি, চিনার পার্ক থেকে শুরু করে বিধাননগর পুরসভার ২ থেকে ৫ নম্বর ওয়ার্ড জলমগ্ন হয়। বাসিন্দাদের একাংশের অভিযোগ, আগের তুলনায় নিকাশি ব্যবস্থার কিছুটা উন্নতি হলেও জল জমার সমস্যা মেটেনি। বিধাননগর পুরসভা সূত্রের খবর, রাজারহাট-গোপালপুর, নিউ টাউনের অংশে একাধিক সরকারি প্রশাসন কাজ করে। বেশ কিছু কারিগরি সমস্যা রয়েছে। পাশাপাশি কলকাতা বিমানবন্দর এলাকার জমা জলও পুর এলাকায় পড়ছে।

মেয়র পারিষদ দেবাশিস জানা জানান, জল জমার সমস্যা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ দিন পরিদর্শনের পরে কিছু পরিকল্পনা হয়েছে। সুসংহত পরিকল্পনা তৈরি করতে বিভিন্ন সরকারি দফতর একযোগে বৈঠক করবে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন