শুধু একটি সেফটিপিন। তা দিয়েই মোটরবাইকের তালা ভেঙে ফেলত কিশোর!

গত বৃহস্পতিবার ফুলবাগান থানা এলাকা থেকে চুরি গিয়েছিল একটি মোটরবাইক। সেই ঘটনার তদন্তে নারকেলডাঙা এলাকার এক কিশোরকে আটক করা হয়। তাকে জেরা করে এই তথ্য জানা গিয়েছে। গাড়ি চুরির এমন কারসাজি দেখে তাজ্জব তদন্তকারীরাও। লালবাজার সূত্রের খবর, আগে চুলের কাঁটা, ছোট কাঁচি দিয়ে গাড়ির তালা ভাঙার কথা শোনা গেলেও সেফটিপিন তালিকায় নতুন। 

ওই চুরির ঘটনার তদন্তে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে এক কিশোরকে চিহ্নিত করেন তদন্তকারীরা। সূত্র মারফত নারকেলডাঙা মেন রোডে তার বাড়ির হদিস মেলে। শুক্রবার রাতে একাদশ শ্রেণির ছাত্র ওই কিশোরকে আটক করেন তদন্তকারীরা। তার থেকে প্রায় ২৫ হাজার টাকা মেলে। তার পরিবার জানায়, ওই টাকা তাদের নয়। পুলিশের অনুমান, কোনও মোটরবাইক চুরি চক্রের সঙ্গে জড়িত ওই কিশোর বখরা হিসেবে ওই টাকা পেয়েছে। 

পুলিশ সূত্রের খবর, কিশোরকে জেরা করে জানা যায়, তার এক আত্মীয় পুলিশে চাকরি করেন। তিনি নারকেলডাঙা এলাকায় সরকারি আবাসনে থাকেন। সাদা রঙের বাইকটি সে ওই আবাসনে রেখে এসেছে। সেখান থেকেই উদ্ধার হয় সেটি। ওই আত্মীয়ের দাবি, বিষয়টি তিনি জানতেন না।

পুলিশ সূত্রের খবর, কিশোরকে থানায় এনে জেরা করলে বেরিয়ে আসে এই কারসাজির তথ্য। দেখা যায়, সেফটিপিন ঢুকিয়ে তিন বার মোচড় দিতেই তালা ভেঙে যাচ্ছে। পুলিশের দাবি, কিশোরকে আরও জেরা করা হবে। শনিবার তাকে জুভেনাইল জাস্টিস বোর্ডের সামনে হাজির করা হয়েছিল।