• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মায়ের ঝুলন্ত দেহ, মেয়ে ভাবল ম্যাজিক

death
প্রতীকী চিত্র।

মা সিলিং ফ্যান থেকে ঝুলছেন। অনেক ডেকেও সাড়া মিলছে না। পাঁচ বছরের মেয়ে বাবাকে ফোন করে জানিয়েছিল সে কথা। দ্রুত বাড়ি ফিরে তরুণীর স্বামী দেখতে পান স্ত্রীর ঝুলন্ত দেহ। মেয়ে বাবাকে জানায়, গলায় চাদর জড়িয়ে সিলিং ফ্যান থেকে ঝোলার সময়ে মা বলেছিলেন, ‘ম্যাজিক দেখাচ্ছি’! 

পুলিশ জানায়, শুক্রবার রাতে পর্ণশ্রীর বেণী মাস্টার লেনের একটি ঘর থেকে পূজা হালদার (২৭) নামে ওই তরুণীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করেন তাঁর স্বামী ও পড়শিরা। তাঁকে বিদ্যাসাগর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

পূজার স্বামী রাজুকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ জেনেছে, তিনি রাত ১২টা নাগাদ পাড়ায় খাবার কিনতে বেরিয়েছিলেন। মেয়েকে নিয়ে পূজা বাড়িতেই ছিলেন। সাড়ে ১২টা নাগাদ রাজু মেয়ের ফোন পান। বাড়ি ফিরে স্ত্রীকে ঝুলতে দেখে তিনি হতভম্ব হয়ে যান। সম্বিৎ ফিরলে শ্বশুরবাড়ির লোকজন ও পড়শিদের ডেকে আনেন। মেয়ে তার পরে তাঁকে মায়ের ‘ম্যাজিক’ দেখানোর কথা জানায়।

পুলিশ জানায়, পূজার প্রথম পক্ষের স্বামী কয়েক বছর আগে মারা গিয়েছেন। গত সেপ্টেম্বর মাসে রাজু হালদার নামে স্থানীয় এক যুবকের সঙ্গে কালীঘাটের মন্দিরে গিয়ে বিয়ে করেন তিনি। প্রথম পক্ষের মেয়ে পাঁচ বছরের পল্লবীকে নিয়ে রাজুর সঙ্গে বেণী মাস্টার লেনের বাড়িতে থাকতেন পূজা। শিশু অবস্থাতেই পূজার বাবা মারা যান। কাকা রিন্টু শীলের কাছেই বড় হন পূজা। তিনি পূজার বাড়ির কাছাকাছিই থাকেন।

পুলিশ জানায়, এলাকার লোকজন ও রিন্টুবাবুকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা গিয়েছে, স্বামীর সঙ্গে পূজার সম্পর্ক ভালই ছিল। প্রথম পক্ষের মেয়েকে নিয়েও রাজুর সঙ্গে তাঁর বিবাদ হয়নি। পুলিশ জানায়, এ দিন রাত 

পর্যন্ত মহিলার অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় কেউ পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেননি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন