• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পথ জুড়ে বিক্ষোভ, অচল শহর

Road Jam
অপেক্ষা: যানজটে আটকে। বুধবার, চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউয়ে। নিজস্ব চিত্র

Advertisement

ফের কাজের দিনে মিছিলের জেরে বিকেলে বাড়ি ফিরতে গিয়ে যানজটে নাজেহাল সাধারণ মানুষ।

পুলিশ সূত্রের খবর, রাজ্যের বিরোধী একটি রাজনৈতিক দলের বিক্ষোভ মিছিল উপলক্ষে জমায়েতের জন্য বুধবার বিকেলে কিছুক্ষণের জন্য শহরের প্রাণকেন্দ্র অচল হয়ে পড়ে। যাতে বিকেলের দিকে রাস্তায় নামা বাড়ি ফেরত অফিস যাত্রীদের বেগ পেতে হয়। ধনতেরসের জন্য বড়বাজারের বিভিন্ন রাস্তায় প্রতিদিন যানজট লেগে থাকছে। ওই মিছিলটি জওহরলাল নেহেরু রোড, চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ হয়ে সোজা মহাজাতি সদনে যায়। পুলিশের দাবি, এর জেরে ওই সব রাস্তায় বেশ কিছুক্ষণের জন্য ব্যাহত হয় গাড়ি চলাচাল। মিছিলটি মহাজাতি সদনে পৌছনোর পরে বন্ধ হয়ে যায় চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ এবং মহাত্মা গাঁধী রোডের এক দিকের যান চলাচল।

দিল্লি-সহ বিভিন্ন জায়গায় পার্টি আফিস এবং দলীয় কর্মীদের আক্রান্ত হওয়ার প্রতিবাদে সিপিএমের তরফে এ দিন বিকেলে ওই বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দেওয়া হয়েছিল। তাতে অংশ নেওয়ার জন্য এস এন ব্যানার্জি রোড দিয়ে ধর্মতলায় মিছিল এলে ওই রাস্তায় যান চলাচাল ব্যাহত হয়। পরে ধর্মতলা থেকে মূল মিছিল বেরোয়। পুলিশ সূত্রের খবর, ধর্মতলায় জমায়েত করে মিছিল শুরু হওয়ার ফলে এক সময়ে জওহরলাল নেহেরু রোড দিয়ে উত্তরমুখী গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। বন্ধ হয়ে যায় পার্ক স্ট্রিট উড়ালপুল দিয়ে ধর্মতলার দিকের গাড়ি। পুলিশ জানায়, ওই সময়ে বিবাদী বাগ বা উত্তরের গাড়িগুলি পার্ক স্ট্রিট মোড় থেকে মেয়ো রোড দিয়ে পাঠানো হয়েছিল।

পরে মিছিল চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ দিয়ে যাওয়ার ফলে ফের ব্যাহত হয় ওই রাস্তার এক পাশের যান চলাচাল। যার জের গিয়ে পড়ে গণেশচন্দ্র অ্যাভিনিউ, বি বি গাঙ্গুলি স্ট্রিটের মতো রাস্তায়। এক সময়ে দেখা যায় মিছিলের পিছনে দাঁড়িয়ে রয়েছে লম্বা গাড়ির সারি। ওই সময়ে বিভিন্ন গাড়িকে কলুটোলা স্ট্রিট এবং গিরিশ পার্ক দিয়ে ঘোরানো হয়েছে বলে লালবাজার সূত্রের খবর।

পুলিশ জানিয়েছে, ধনতেরাস শুরু হয়ে যাওয়ায় এমনিতেই বড়বাজার, পোস্তার বিভিন্ন রাস্তাতেই গত কয়েক দিন ধরে গাড়ির গতি রয়েছে স্লথ। ফলে দুপুর থেকেই মহাত্মা গাঁধী রোড, চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ দিয়ে গাড়ির গতি বারবার থমকে গিয়েছে। এ দিন বিকেলে ওই মিছিলের ফলে সেই যানজট আরও মারাত্মক আকার নেয়। যা স্বাভাবিক হতে রাত হয়েছে বলে পুলিশের একাংশ দাবি করেছে।

লালবাজারের এক কর্তা দাবি করেছেন, মিছিলের জেরে শহরে তেমন যানজট হয়নি। মিছিল যে রাস্তা দিয়ে গিয়েছে, সেখানে সাময়িক ভাবে গাড়ি চলাচল ব্যহত হয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন