এক দিকে ট্রামলাইন, অন্য দিকে বিদ্যুতের খুঁটি। দুইয়ের মাঝে পড়ে বুধবার সকালে চিঁড়েচ্যাপ্টা হয়ে গেল একটি অ্যাপ-ক্যাব। অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন গাড়ির পিছনে বসা সওয়ারি। নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে বেপরোয়া গাড়ি চালানো এবং ট্র্যাফিক আইন ভাঙার দায়ে গাড়িচালককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ, বৃহস্পতিবার তাঁকে আদালতে তোলার কথা।

পুলিশ জানায়, বুধবার সকাল সা়ড়ে সাতটা নাগাদ রাজাবাজারের দিক থেকে শিয়ালদহের দিকে যাচ্ছিল অ্যাপ-ক্যাবটি। সে সময়ে উল্টো দিক থেকে আসছিল ট্রাম। ট্রামের রাস্তা এড়াতে চালক ইফতিকার ওয়াহাব আচমকা ক্যাবটি ডান দিকে ইউ-টার্ন করতে যান। কিন্তু গাড়িটি বিদ্যুতের খুঁটিতে ধাক্কা মেরে আটকে যায়। ট্রামচালকও গতি নিয়ন্ত্রণ করতে পারেননি। ট্রাম এবং বিদ্যুতের খুঁটির মাঝে পড়ে গাড়িটি একেবারে চেপে যায়।

ট্রাম চলে যাওয়ার পরে দেখা যায়, বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে ক্যাবের একটি চাকা কার্যত মুড়ে রয়েছে। এর পরে গাড়িচালক এবং পিছনে বসা যাত্রীকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরে চালককে হেফাজতে নেয় তারা।

পুলিশের দাবি, ওই সময়ে ইউ-টার্নের সিগন্যাল না থাকা সত্ত্বেও চালক গাড়ি ঘোরাতে যান। এর ফলেই বিপদ ঘটে। এক পুলিশ আধিকারিক বলেন, ‘‘চালক বেপরোয়া ভাবে গাড়ি চালাচ্ছিলেন। ট্রাম আর পোস্টের মাঝে চাপা পড়ে বড় বিপদ হতে পারত।’’ ওই যাত্রীর স্বামী বলেন, ‘‘বড় কিছু হয়নি এটাই রক্ষে। তবে ক্যাবচালকের আরও সতর্ক হওয়া উচিত ছিল।’’