• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

লিন্ডসে স্ট্রিটে রক্ষীহীন রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের ভল্ট কেটে লুটের চেষ্টা

Bank
এই সেই ব্যাঙ্ক।—নিজস্ব চিত্র।

রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের ভল্ট কেটে চুরির চেষ্টা হল। পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাত থেকে সোমবার সকালের মধ্যে নিউ মার্কেট থানা এলাকার লিন্ডসে স্ট্রিটে একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কে। তবে করাত বা ওই জাতীয় ধারালো কিছু দিয়ে ভল্ট কেটে লুটের চেষ্টা সফল হয়নি। কলকাতা পুলিশের ডিসি (সেন্ট্রাল) সুধীরকুমার নীলকান্তম জানান, টাকা বা সোনা কিছু খোয়া যায়নি। একটি ট্রাঙ্কে থাকা খুচরো পয়সাও নিতে পারেনি দুষ্কৃতীরা।

পুলিশ সূত্রের খবর, শুক্রবার বিকেলে বন্ধ হওয়ার পরে সোমবার ফের ব্যাঙ্ক খোলে। মাঝে শনিবার ব্যাঙ্ক বন্ধ ছিল। এ দিন ব্যাঙ্ক খোলার পরে কর্মীরা দেখেন, ভল্টের একাংশ কাটার চেষ্টা হয়েছে। এর পরেই ঘটনাটি সদর দফতরে জানানোর পাশাপাশি থানায় জানানো হয়। ঘটনাস্থলে আসেন লালবাজারের গোয়েন্দারা। 

পুলিশের অনুমান, দুষ্কৃতীরা ঢুকেছিল ব্যাঙ্কের পিছন দিক দিয়ে। কারণ, ব্যাঙ্কের সামনে সব তালা ছিল অক্ষত। এবং পিছন দিকের একটি কোল্যাপসিব্‌ল গেট ঠিক মতো বন্ধ হয় না বলে পুলিশ জেনেছে।

লালবাজার সূত্রের খবর, ব্যাঙ্কের সিসি ক্যামেরার তার কেটে দিয়েছিল দুষ্কৃতীরা। ফলে কোনও ছবি সোমবার রাত পর্যন্ত মেলেনি। পাশাপাশি, ব্যাঙ্কে নিরাপত্তারক্ষীও ছিলেন না। বিকল ছিল বিপদঘণ্টিও। পুলিশ জানিয়েছে,  এলাকার সিসি ক্যামেরার ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কেন কোল্যাপসিব্‌ল গেট সারাই হয়নি, তা-ও খোঁজ করা হচ্ছে। লালবাজারের তরফে সব থানাকে তাদের এলাকার ব্যাঙ্কগুলির নিরাপত্তা নিয়ে কর্তৃপক্ষদের সঙ্গে আলোচনা করতে বলা হয়েছে।   

বছর চারেক আগে নিউ মার্কেট এলাকাতেই একটি ব্যাঙ্কে ঢুকে লক্ষাধিক টাকা লুট করেছিল বাংলাদেশি দুষ্কৃতীরা। ওই বছরই নেতাজিনগরে একটি ব্যাঙ্কের ভল্ট কাটার চেষ্টা হয়। পরে সিঁথি এলাকাতেও এটিএমের টাকার ভল্ট কেটে লুটের ঘটনা ঘটে। ওই দুষ্কৃতীদের সঙ্গে নিউ মার্কেটের ঘটনার যোগ আছে কি না, দেখছেন গোয়েন্দারা।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন