• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

তোলা ‘চেয়ে’ ধৃত বিজেপির মণ্ডল নেতা

Arrest
প্রতীকী ছবি

আমপানে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ি সারানোর জন্য দলের মণ্ডল সভাপতি ১০ লক্ষ টাকা তোলা চেয়েছিলেন বলে পুলিশে  অভিযোগ করেছিলেন বালির বিজেপি যুব মোর্চার এক নেতা। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার রাতে নিউ দিঘার হোটেল থেকে রাধারঞ্জন গোস্বামী নামে ওই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

২৯ অগস্ট যুব মোর্চার নেতা সৌরভ পাল বালি থানায় অভিযোগ করেন, আমপানে তাঁর বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তা মেরামতির জন্য দলেরই বালি মণ্ডলের সভাপতি রাধারঞ্জন ওরফে রাজা ১০ লক্ষ টাকা তোলা চান। রাজি না হওয়ায় ২৮ অগস্ট তাঁর থেকে ১০ হাজার টাকা রাজা ছিনিয়ে নেন বলেও অভিযোগ। তৃণমূলের হাওড়া জেলার নেতা তথা মন্ত্রী অরূপ রায়কেও বিষয়টি জানান সৌরভ। পুলিশের দাবি, অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর থেকেই নিখোঁজ ছিলেন রাজা। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সোমবার রাতে নিউ দিঘার হোটেলে হানা দেয় পুলিশ।

বিজেপির মণ্ডল সভাপতির বিরুদ্ধে সেই দলেরই যুব সংগঠনের নেতার এ হেন অভিযোগকে দলের আভ্যন্তরীণ গোষ্ঠীকোন্দল বলছেন স্থানীয় তৃণমূল নেতারা। তবে এ দিন আদালতে যাওয়ার পথে রাজা বলেন, ‘‘অভিযোগের কোনও প্রমাণ দিতে পারেননি সৌরভ। বিজেপি-র কিছু নবীন নেতাকে টাকা দিয়ে কিনে নিয়ে এই নোংরা খেলা চালাচ্ছে তৃণমূল।’’ বিষয়টি বিরোধীদের চক্রান্ত বলে দাবি করছেন জেলার বিজেপি সভাপতি সু‌রজিৎ সাহাও। অরূপ বলেন, ‘‘সৌরভ এসেছিলেন সাধারণ নাগরিক হিসেবে। আমিও পুলিশকে বলেছিলাম যাতে কোনও অসুবিধা না হয় সে দিকে নজর রাখতে। সৌরভের অভিযোগের ভিত্তিতেই পুলিশ আইনানুযায়ী ব্যবস্থা নিয়েছে।’’

কয়েক দিন আগে এক প্রোমোটারের থেকে কয়েক লক্ষ টাকা তোলা চাওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছিলেন বালির এক তৃণমূল কর্মীও। এ দিন বিধানসভা যাওয়ার পথে এ প্রসঙ্গে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান বলেন, ‘‘কিছু দিন ধরেই বালির রাজনীতি মাফিয়াদের হাতে চলে গিয়েছে। বিজেপি ও তৃণমূল দু’টি দলই ভাবছে তারা ক্ষমতায় আসবে। পুলিশ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে তৃণমূল এবং বিজেপি-কে মদত দিচ্ছে, আর তাতেই এই মাফিয়ারা রাজত্ব করছে। এতে বালির ঐতিহ্য নষ্ট হচ্ছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন