আগুনে ভস্মীভূত হয়ে গেল একটি গাড়ির যন্ত্রাংশ তৈরির কারখানা। বুধবার গভীর রাতে ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ শহরতলির মহেশতলা পুরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ডের রামপুর কোয়ার্টার্স এলাকায়।

পুলিশ জানায়, রাত ১১টা নাগাদ কারখানার জানলা থেকে আগুনের ফুলকি দেখতে পেয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা দমকলে খবর দিয়েছিলেন। দমকল পৌঁছনোর আগেই অবশ্য স্থানীয়েরা কারখানার দরজা ভেঙে আগুনে জল দিতে শুরু করেন। পরে দমকলের পাঁচটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণ করা শুরু করে।

প্রাথমিক ভাবে দমকলের অনুমান, শর্ট-সার্কিট থেকে আগুন লেগেছিল। দমকলকর্মীরা জানান, প্রায় রাত আড়াইটে নাগাদ আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। বন্ধ কারখানার ভিতর থেকে এক নিরাপত্তারক্ষীকে উদ্ধার করা হয়। তাঁরা জানান, একটি একতলা বাড়িতে ওই কারখানা চলত। ভিতরে থার্মোকল, নানা রাসায়নিক ভর্তি ড্রাম ও পিসবোর্ড ঠাসা ছিল ওই কারখানায়। একতলার ঘর থেকে আগুন ছাদে থাকা দাহ্য বস্তুতে ছড়িয়ে পড়ে। 

ওই কারখানার আশপাশের বাড়িতে আগুন যাতে ছড়িয়ে না পড়ে, তার জন্য দমকলের পাঁচটি ইঞ্জিন কারখানার চার দিক ঘিরে জল দিতে থাকে। কারখানায় অগ্নি-নির্বাপক যন্ত্র ছিল কি না, তা খতিয়ে দেখছে মহেশতলা থানার পুলিশ। ডায়মন্ড হারবার জেলা পুলিশের এক আধিকারিক জানান, দমকলের অভিযোগের ভিত্তিতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। খোঁজ চলছে কারখানার মালিক পক্ষের।