• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ফের ছিনতাই ফুলবাগানে

1

Advertisement

সকালে প্রাতর্ভ্রমণ করতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে কিছুটা দুরে গিয়েছিলেন এক মহিলা। সে সময় পিছন থেকে মোটরবাইক চেপে এসে দুই দুষ্কৃতী ওই মহিলার গলার হারটি ছিনতাই করে পালায়।

 পুলিশ সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে ফুলবাগান থানা থেকে কিছুটা দুরে রামকৃষ্ণ সমাধি রোডে। এ দিন সকালে প্রাতর্ভ্রমণ করতে বেরিয়েছিলেন পঞ্চাশ বছর বয়সী কুসুম অগ্রবাল নামে এক মহিলা। তার বাড়ি ঘটনাস্থলের খুব কাছেই। পুলিশের কাছে মহিলার দাবি, ওই সময় ওই এলাকায় বেশ কয়েকজন প্রাতর্ভ্রমণকারী ছিলেন, পুলিশ জানিয়েছে, প্রাতর্ভ্রমণকারীরা কেউ ওই মোটরবাইকের নম্বর দেখতে পাননি। পরে ফুলবাগান থানায় ছিনতাইয়ের অভিযোগ দায়ের করেন ওই মহিলা।

 প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানিয়েছে, বাইক আরোহী দুই দুষ্কৃতীর মধ্যে একজনের মাথায় হেলমেট থাকলেও অন্য জনের মাথায় হেলমেট ছিল না। ঘটনার তদন্ত শুরু হলেও কোন দুষ্কৃতীর খোঁজ পায়নি তদন্তকারীরা। পুলিশের অনুমান, কলকাতা শহরে বাইরের লাগোয়া এলাকার দুষ্কৃতীরা ওই ছিনতাইয়ের সঙ্গে জড়িত।

গোয়েন্দারা জানিয়েছেন, গত মাসে ফুলবাগান-বেলেঘাটা এলাকায় তিনটির বেশি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। এ ছাড়া নিউ আলিপুর বেনিয়াপুকুর সহ শহরে বেশ কয়েকটি জায়গাতে ছিনতাইবাজদের কবলে পড়তে হয়েছে সাধারণ মানুষকে।

এক গোয়েন্দা অফিসার বৃহস্পতিবার বলেন,‘‘গত মাসে ডাকাতির ঘটনায় আসলাম শেখ নামে এক দুষ্কৃতীকে তার বান্ধবী এবং দলবল সহ গ্রেফতার করা হয়েছিল। ওই দলটি শহরের একাধিক ছিনতাইয়ের ঘটনায় যুক্ত ছিল। ধৃতরা স্বীকারও করে নিয়েছিল তারা শহরের প্রায় ১৫ টির বেশি ছিনতাইয়ের সঙ্গে যুক্ত।’’

লালবাজার সূত্রের খবর, গত নয় মাসে প্রায় ৬৫টির বেশি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে শহরে। ওই ছিনতাইবাজ দল গ্রেফতার হওয়া সত্ত্বেও ছিনতাইয়ে ঘটনায় লাগাম টানা যায়নি বলে অভিযোগ উঠেছে।

গোয়েন্দাদের দাবি, নির্জন স্থানে বৃদ্ধা এবং মহিলাদের টার্গেট করে ছিনতাইবাজরা। পরে সুবিধে মত ছিনতাই করে পালিয়ে যায়। গোয়েন্দাদের একাংশ জানাচ্ছেন, পুজোর আগে শহরে নিরাপত্তা বৃদ্ধি করা সত্ত্বে প্রতিবারই এই সময়ে শহরে ছিনতাইবাজদের দাপট দেখা যায়। উদাহরণ হিসেবে লালবাজারের কর্তারা বলছেন, বছর কয়েক আগেও পুজোর সময় কলকাতার বিভিন্ন প্রান্তে মোটরবাইক-আরোহী ছিনতাইবাজদের দাপট বেড়েছিল। যাদবপুর, ঢাকুরিয়া ও কসবায় ছিনতাই করতে এসে গুলিও চালিয়েছিল ছিনতাইবাজেরা। লালবাজারের আশ্বাস একটি ছিনতাইবাজদের দল ধরা পড়েছে। বাকিদেরও ধরা সম্ভব হবে কয়েকদিনের মধ্যে।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন