রেললাইন পেরোতে গিয়ে ট্রেনের ধাক্কায় এক যুবকের মৃত্যুর ঘটনার জেরে লেভেল ক্রসিংয়ের দাবিতে রেল অবরোধ করলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। মঙ্গলবার দুপুর ১টা থেকে ২টো পর্যন্ত ঘণ্টাখানেক ধরে ওই অবরোধ চলে সোনারপুর ও সুভাষগ্রাম স্টেশনের মধ্যে চণ্ডীপুর এলাকায়। লাল পতাকা দেখিয়ে ট্রেন থামিয়ে প্রায় শ’পাঁচেক মহিলা ও পুরুষ লাইনে নেমে পড়েন।

রেল পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই এলাকায় কোনও লেভেল ক্রসিং নেই। স্থানীয় বাসিন্দারা লাইন পেরিয়েই যাতায়াত করেন। সোমবার ওই দুর্ঘটনার পরে মঙ্গলবার রেলের তরফে স্থানীয় বাসিন্দাদের যাতায়াতের রাস্তাটি ৫০ ফুট লোহার স্তম্ভ দিয়ে ঘিরে দেওয়ার কাজ শুরু হয়। ওই জায়গা কোনও মতেই তাঁরা ঘিরতে দেবেন না জানিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। শুরু হয় অবরোধ। ঘটনাস্থলে জিআরপি-র পদস্থ কর্তারা গিয়ে রেল দফতরের কাছে লিখিত আবেদন করার জন্য বিক্ষোভকারীদের প্রস্তাব দেন। এর পরে অবরোধ উঠে যায়।

আরও পড়ুন: চাকরির টোপে এনে সোজা ডান্স বারে, হাওড়ায় উদ্ধার ৫৫ তরুণী​

রেল পুলিশ জানিয়েছে, সোমবার বিকেলে কৌস্তুভ চক্রবর্তী (২৬) নামে এক যুবক লাইন পেরোতে গিয়ে ট্রেনের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই মারা যান। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, রেললাইন পার হওয়ার ওটাই একমাত্র পথ। সেখানে একটি লেভেল ক্রসিংয়ের খুব প্রয়োজন। ওই রাস্তার কোনও বিকল্প পথ নেই। অবরোধের জেরে এ দিন চার জোড়া ট্রেন বাতিল করা হয়েছে বলে রেল সূত্রে খবর। দুপুর তিনটের পরে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে বলে দাবি করেছেন রেল কর্তৃপক্ষ।