পেটে ব্যথা, বমি আর পাতলা পায়খানা। গত কয়েক দিন পুরসভার স্বাস্থ্যকেন্দ্রে এমনই উপসর্গ নিয়ে এসেছিলেন কয়েক জন বাসিন্দা। এর পরেই আতঙ্ক ছড়াল দক্ষিণ কলকাতার গোটা পাঁচেক ওয়ার্ডে। গত বছর যাদবপুর ও টালিগঞ্জ অঞ্চলের ৯১, ৯২, ১০১, ১০২ ও ১০৯ নম্বর ওয়ার্ডে ডায়েরিয়ার সংক্রমণে কয়েকশো বাসিন্দা আক্রান্ত হয়েছিলেন। সে সময়ে অভিযোগ উঠেছিল, পুরসভার সরবরাহ করা পানীয় জলে দূষণ থেকেই পেটের রোগ ছড়িয়েছে। তা নিয়ে হইচই হয় শহর জুড়ে।

দিন ৩-৪ আগে কয়েক জন রোগী ওই একই উপসর্গ নিয়ে পুর স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসার জন্য এসেছিলেন। তা দেখেই স্বাস্থ্যকেন্দ্রের চিকিৎসকেরা তড়িঘড়ি জল সরবরাহ দফতরে খবর দেন। দফতরের এক আধিকারিক জানান, খবরটি কানে আসতেই ওই সব এলাকার পানীয় জলের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কোনও আক্রান্তের খবর আসেনি।

পুরসভার ১০ নম্বর বরোর চেয়ারম্যান তপন দাশগুপ্ত জানান, পানীয় জল পরীক্ষা করে দূষণের প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তাঁর কথায়, ‘‘অল্প কিছু সংখ্যক বাসিন্দার ডায়েরিয়ার মতো উপসর্গ হয়েছিল। তাঁরা হাসপাতালের আউটডোরে দেখিয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন।’’