• ফিরোজ ইসলাম
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

জিএম বদলির ‘গেরোয়’ কি দেরি ইস্ট-ওয়েস্ট পরিষেবায়

Metro
ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর মহড়া দৌড়। ফাইল চিত্র

ড্রেসিংরুম থেকে আউটফিল্ড, গ্যালারি থেকে উইকেট—তৈরি সব। দর্শকেরাও টিকিট কেটে মাঠে ঢোকার অপেক্ষায়। কিন্তু নাগাড়ে নেট প্র্যাকটিস করে চলা খেলোয়াড়েরাই কেউ জানেন না কবে ম্যাচ শুরু হবে। কারণ, এখনও আসেনি আম্পায়ারের সম্মতি!

পাঁচ নম্বর সেক্টর থেকে সল্টলেক স্টেডিয়ামের মধ্যে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকার পরিকাঠামো নিয়ে তৈরি ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর অবস্থা অনেকটা এমনই। ২০১৮ সালের এপ্রিলে ট্রেন চলাচলের প্রাথমিক ব্যবস্থা সম্পূর্ণ হয়েছিল। তার পরবর্তী সময়ে পরিষেবা চালু করার যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পূর্ণ হয়ে গেলেও যাত্রী নিয়ে ট্রেন কবে ছোটা শুরু করবে, কেউই নির্দিষ্ট করে জানেন না। চলতি মাসের শুরুতে দফতরের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় জানিয়েছিলেন, মাঝামাঝি সময়ে শুরু হতে পারে পরিষেবা। কিন্তু মাস ফুরোতে চললেও জল সে ভাবে গড়ায়নি বলে অভিযোগ।

কেন এই বিলম্ব? পাঁচ নম্বর সেক্টর থেকে সল্টলেক স্টেডিয়ামের মধ্যে কম-বেশি সাড়ে চার কিলোমিটার মেট্রো পথে প্রায় দেড় বছর ধরে ট্রেনের মহড়া-দৌড় চলছে। নানা বাধা পেরিয়ে গত নভেম্বরে আদাজল খেয়ে কোনও মতে ট্রেন চালানোর প্রস্তুতি সম্পূর্ণ করেন মেট্রোর আধিকারিকেরা। রেলওয়ে সেফটি কমিশনারের বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যে সারা হয় সমস্ত কিছু। প্রায় গোল বাঁচানোর মতো করে!

কিন্তু, জটিলতা দেখা দেয় তার পরে। পুজো মিটতেই কলকাতা মেট্রোর জেনারেল ম্যানেজার পি সি শর্মা বদলি হয়ে যান রেল বোর্ডে। মেট্রোর অতিরিক্ত দায়িত্ব এসে পড়ে পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজার সুনীত শর্মার উপরে। রায়বরেলীর মডার্ন কোচ ফ্যাক্টরির ওই প্রাক্তন কর্তার তত্ত্বাবধানে চলতে থাকে পরিষেবা শুরু করার প্রস্তুতি। মেট্রোকর্তারা কাজ প্রায় গুটিয়ে আনার পরে পরিষেবা চালুর জন্য রেল বোর্ডের থেকে আরও কিছুটা সময় চেয়ে নেন সুনীতবাবু।

এরই মধ্যে দেশ জুড়ে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে বিক্ষোভ শুরু হওয়ায় পরিস্থিতি বদলে যায়। সরকারি অনুষ্ঠানের তৎপরতাও কিছুটা ঝিমিয়ে পড়ে। তার উপরে মেট্রোর অতিরিক্ত দায়িত্বের পাশাপাশি পূর্ব রেল নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন সুনীতবাবু। মেট্রো আধিকারিকদের একাংশের অভিযোগ, জিএম বদলের ডামাডোলেই ব্যাহত হয়েছে পরিষেবা চালু করার কাজ।

রেল সূত্রের খবর, যে কোনও নতুন পরিষেবা চালু করার ক্ষেত্রে জিএম-দের কৃতিত্ব বাড়ে। কিন্তু সেই পরিষেবায় কোনও বিপত্তি দেখা দিলে তার দায়ও চাপে তাঁদের ঘাড়েই। ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো পরিষেবা মসৃণ হবে কি না, অনেকটা সেই আশঙ্কায় সুনীতবাবু মেট্রোর অতিরিক্ত দায়িত্ব নিয়ে বিপত্তি বাড়াতে চাননি বলে অভিযোগ। তাতেই পিছিয়ে যায় উদ্বোধন।

সম্প্রতি মেট্রো রেলের নতুন জেনারেল ম্যানেজারের পদে এসেছেন পেশায় মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার মনোজ জোশী। মেট্রোর হাল-হকিকৎ জানতে বিভিন্ন নির্মীয়মাণ প্রকল্পের পাশাপাশি ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোও ঘুরে দেখেছেন তিনি। সূত্রের খবর, মনোজবাবু দ্রুত পরিষেবা চালুর পক্ষপাতী। ফলে ফের চাকা ঘোরার সম্ভাবনা দেখছে মেট্রো।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন