• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আইনের বিরুদ্ধে সরব প্রেসিডেন্সির প্রাক্তনীরাও

caa
সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় বোর্ডে স্বাক্ষর প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের। সোমবার। ছবি: দেবস্মিতা

Advertisement

প্রেসিডেন্সি কলেজের (বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়) ২০৩তম প্রতিষ্ঠা দিবসের অনুষ্ঠানে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে পড়ুয়াদের সঙ্গে শামিল হলেন প্রাক্তনীরা। সোমবার প্রেসিডেন্সির মাঠের কাছে রাখা সাদা বড় বোর্ডে এই আইনের বিরুদ্ধে তাঁরাও স্বাক্ষর করলেন বর্তমান পড়ুয়াদের সঙ্গে।

এ দিন অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান পড়ুয়ারা সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন। এর পরে শুরু হয় ওই আইনের বিরুদ্ধে সই-পর্ব। সাদা বড় বোর্ডে একে একে স্বাক্ষর করেন নাট্যকার বিভাস চক্রবর্তী, রাজ্যের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রসচিব প্রসাদরঞ্জন রায়, প্রেসিডেন্সির এমেরিটাস অধ্যাপক প্রশান্ত রায়-সহ বেশ কয়েক জন বিশিষ্ট প্রাক্তনী।
প্রসাদরঞ্জনবাবু বলেন, ‘‘কর্মজীবনে কখনও কোনও রাজনৈতিক দলের হয়ে কথা বলিনি। কাজ করেছি সরকারের হয়ে। এ বার এই নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে সরব হতে বাধ্য হয়েছি।’’ আর বিভাসবাবুর কথায়, ‘‘৩৮ শতাংশ ভোটে জিতে বিজেপি জোর করে এই আইন চাপিয়ে দিতে পারে না।’’

প্রাক্তনী সংসদ আয়োজিত এ দিনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নাট্যকার বিভাসবাবু। প্রাক্তনী সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক বিভাস চৌধুরী জানান, মার্চ মাসে আবার কলকাতায় আসার কথা নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তখন তাঁকে বিশিষ্ট প্রাক্তনী সম্মান ‘অতুলচন্দ্র গুপ্ত পুরস্কার’ দেওয়া হবে। উনি এই পুরস্কার নিতে সম্মত হয়েছেন। প্রেসিডেন্সির উপাচার্য অনুরাধা লোহিয়া বলেন, ‘‘অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তৈরি হয়েছে ঠিকই। কিন্তু প্রেসিডেন্সি এখনও আছে
সামনের সারিতেই।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন