• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

গয়নার দোকানে বিস্ফোরণ, জখম কর্মী

explosion
প্রতীকী ছবি।

সোনার গয়না তৈরি করার সময়ে বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল গোটা এলাকা। গুরুতর জখম হলেন ওই দোকানের এক কর্মচারী। রবিবার বেলা সাড়ে ১১টা নাগাদ ওই ঘটনা ঘটেছে হাওড়ার শিবপুরের ক্ষেত্র ব্যানার্জি লেনে। ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় এর পরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পুলিশ জানিয়েছে, দেবর্ষি মান্না (৪৫) নামে শিবপুরের নবীন মুখার্জি লেনের বাসিন্দা ওই কারিগর হাওড়া জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনার পরে পুলিশ ও দমকলের দু’টি গাড়ি ঘটনাস্থলে যায়। বিস্ফোরণের তীব্রতায় দোকানটির পাঁচিল ফেটে যায়। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অন্যান্য দিনের মতো একটি তেতলা আবাসনের নীচে ওই সোনার দোকানে কাজ চলছিল। আচমকাই বিস্ফোরণ হয় দোকানের মধ্যে। বিস্ফোরণের জেরে ওই ফ্ল্যাট-সহ কেঁপে ওঠে গোটা এলাকা। আশপাশের বাড়ি ও দোকানের লোকজন বেরিয়ে আসেন। সকলে দেখেন, দোকানের ভিতরে ধোঁয়া ভরে গিয়েছে। ঝাঁঝালো কটু গন্ধ বেরোচ্ছে। আর দোকানের ভিতরে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন এক ব্যক্তি। এই দৃশ্য দেখেই এলাকার লোকজন পুলিশ ও দমকলকে খবর দেন। পুলিশ এসে ওই দোকানের কর্মী দেবর্ষিবাবুকে হাওড়া জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, সোনার দোকানের ছোট ঘরে বসে কাজ করছিলেন কারিগর দেবর্ষিবাবু। পুলিশ জানায়, আগুন জ্বালিয়ে সোনা গলানোর সময়েই কোনও ভাবে বিস্ফোরণটি ঘটে। তেতলা ওই ফ্ল্যাটের একতলার ঘরে একটি গ্যাস সিলিন্ডারও ছিল। ফলে আরও বড়সড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারত বলে মনে করছেন ওই ফ্ল্যাট ও তার আশপাশের বাসিন্দারা। দমকল এসে ওই সিলিন্ডারটিকে সরিয়ে দেয়। 

যে দোকানের হয়ে কাজ করছিলেন ওই ব্যক্তি সেই দোকানের মালিককেও এ দিন জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। কেন বিস্ফোরণ ঘটল তার কারণ খতিয়ে দেখছেন দমকল আধিকারিকেরা। তবে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, গ্যাস লিক করেই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করছে পুলিশও।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন