এক দিন নিখোঁজ থাকার পরে বন্ধ কারখানার ভিতর থেকে মিলল মালিকের রক্তাক্ত দেহ। রবিবার সন্ধ্যায়, বেলঘরিয়ার ঘটনা। পুলিশ জানায়, ওই যুবকের নাম সন্দীপ সাউ (৩৪)। তাঁর গলায় গভীর ক্ষত ছিল। তা থেকে পুলিশের অনুমান, ধারালো অস্ত্র দিয়ে ওই যুবকের গলায় আঘাত করা হয়েছে। কে বা কারা এই ঘটনা ঘটাল, তা জানতে কারখানা চত্বরের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রের খবর, আগরপাড়ার মহাজাতি নগরের বাসিন্দা সন্দীপের একটি এমব্রয়ডারির কারখানা রয়েছে। বেলঘরিয়ার নীলগঞ্জ রোডের ডালমিয়া শিল্পতালুকের ভিতরে সেই কারখানা। তদন্তে পুলিশ জেনেছে, শনিবার সকালে ভাইকে নিয়ে কারখানায় এসেছিলেন ওই যুবক। দুপুর আড়াইটে নাগাদ ভাই বাড়ি চলে যান। কারখানায় একাই ছিলেন সন্দীপ। ঘণ্টাখানেক পরে ভাই ফিরে এসে দেখেন, তাঁদের কারখানার দরজা বাইরে থেকে বন্ধ। তিনি দাদার মোবাইলে বারবার ফোন করলেও সেটি বন্ধ ছিল। পরিবারের লোকেরা প্রথমে ভেবেছিলেন, কোনও আত্মীয়ের বাড়ি গিয়েছেন সন্দীপ। কিন্তু রাত বাড়লেও কোথাও খোঁজ মেলেনি ওই যুবকের।

পুলিশ জানায়, রবিবার সকালে সর্বত্র খোঁজ করেও সন্দীপের সন্ধান না মেলায় বিকেলে পরিজনেরা বন্ধ কারখানাটির তালা ভেঙে দেখতে বলেন পুলিশকে। সেই মতো তালা ভাঙতেই মেলে সন্দীপের রক্তাক্ত দেহ। ওই শিল্পতালুকে অনেকগুলি কারখানা রয়েছে। কেন কেউ কিছু টের পেলেন না, তা-ও খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা।