মিথ্যা গল্প ফেঁদে টিউশন থেকে দুই খুদে পড়ুয়াকে নিয়ে চম্পট দিয়েছিল এক যুবক। পরে তাদের বাবাকে ফোন করে ১২ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ চাওয়া হয়। বৃহস্পতিবার রাতে, কামারহাটির ঘটনা। ওই রাতেই টাকা জোগাড় করে গোলাবাড়ি থেকে দুই সন্তানকে উদ্ধার করে আনেন তাদের বাবা মহম্মদ এহেসান। তাঁর কথায়, ‘‘পুলিশকে অনুরোধ করেছিলাম বাচ্চা দু’টির যেন ক্ষতি না হয়। সকলের সহযোগিতায় টাকা জোগাড় করে বাচ্চাদের ফিরিয়ে এনেছি।’’

কিন্তু অপহরণকারীদের ধরা হল না কেন? ব্যারাকপুর কমিশনারেটের ডিসি (জোন-২) আনন্দ রায় বলেন, ‘‘অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত চলছে। এখনই এর থেকে বেশি কিছু বলা সম্ভব নয়।’’

এহেসানের আট বছরের ছেলে ও পাঁচ বছরের মেয়ে বৃহস্পতিবার এলাকাতেই পড়তে গিয়েছিল। সাড়ে ৭টা নাগাদ এক যুবক সেখানে গিয়ে জানায়, এহেসানের স্ত্রী সুপ্রিয়া খাতুন অসুস্থ। তা শুনে বাচ্চা দু’টি কাঁদতে শুরু করলে ওই যুবকের সঙ্গে তাদের বাড়ি পাঠিয়ে দেন শিক্ষক। কিন্তু রাত হয়ে গেলেও ছেলে-মেয়ে না ফেরায় খোঁজ শুরু করেন এহেসান। তখনই জানা যায় ঘটনাটি।