বৃষ্টির রাতে অগ্নিকাণ্ডের জেরে আতঙ্ক ছড়াল রাজারহাট থানার অন্তর্গত একটি রিসর্টে। সোমবার রাতে কলকাতা-সহ শহরতলি এলাকায় ঝোড়ো হাওয়ার পাশাপাশি মুষলধারে বৃষ্টি হয়। ঘন ঘন বাজও পড়তে থাকে। রিসর্ট সূত্রের খবর, বাজ পড়েই রিসেপশনের খড়ের চালায় আগুন লেগে যায়। বাঁশ-খড়ের কাঠামো বেয়ে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। আতঙ্কিত হয়ে পড়েন রিসর্টে থাকা অতিথিরা।

টানা কয়েক দিন তীব্র গরমের পরে বৃষ্টি আসায় স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছিলেন রিসর্টের অতিথিরা। আচমকা রিসেপশনের চালার উপরে একটি বাজ পড়লে পুরো ছবিটা বদলে যায়। সূত্রের খবর, তীব্র আওয়াজে কানে তালা লেগে যাওয়ার উপক্রম হয়েছিল রিসর্টের কর্মী এবং অতিথিদের। একটু ধাতস্থ হতে না হতেই তাঁরা দেখেন, চালায় আগুন লেগে গিয়েছে। খড়, বাঁশের চালায় দাউদাউ করে জ্বলতে থাকে আগুন। দ্রুত নিরাপদ আশ্রয়ের দিকে ছোটেন অতিথিরা। এক অতিথির কথায়, ‘‘ফাঁকা জায়গায় রিসর্ট। ফলে বৃষ্টি ও হাওয়ার মধ্যে রিসর্টের বাকি অংশ কতটা নিরাপদ, তা-ও বুঝতে পারছিলাম না। কিন্তু আগুন যে ভাবে ছড়িয়ে পড়ছিল, তাতে যতটা সম্ভব নিরাপদ দূরত্বে সরে আসি।’’

দমকল সূত্রের খবর, রাত ১০টা নাগাদ কন্ট্রোল রুমে অগ্নিকাণ্ডের বার্তা পৌঁছয়। বিধাননগর ও দমদম থেকে দু’টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলের উদ্দেশে রওনা হয়। রিসর্টের অতিথিদের অভিযোগ, দমকলের আসতে দেরি হওয়ায় তাঁরা নিজেরাই আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। এর জন্য দমকল কেন্দ্র থেকে ঘটনাস্থলের দূরত্বকেই দায়ী করেছেন দমকল কর্মীরা।