• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সল্টলেকে ঝুপড়ি দোকানে আগুন, সুরক্ষা-বিধি নিয়ে প্রশ্ন

Fire
সল্টলেকের একটি দোকানে আগুন। ফাইল চিত্র

সল্টলেকের অফিসপাড়া এবং আবাসিক এলাকায় রাস্তার ধারে খাবারের অনেক দোকান রয়েছে। সেখানে মূলত স্টোভ, উনুন বা গ্যাসে রান্না হয়। কিন্তু ওই দোকানগুলিতে সুরক্ষা-বিধি কতটা মানা হচ্ছে এবং সেই সংক্রান্ত নজরদারি রয়েছে কি না— সম্প্রতি একটি খাবারের দোকানে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় সেই প্রশ্ন সামনে এসেছে। সমস্যার কথা মেনে নিয়ে বিধাননগর পুরসভা জানিয়েছে, অবিলম্বে বিষয়টি খোঁজ নেওয়া হবে।

২০ সেপ্টেম্বর রাতে এবি-এসি প্রাথমিক স্কুল লাগোয়া একটি দোকানে আগুন লাগে। স্থানীয়দের দাবি, আগুনের তাপে একটি বাড়ির কাচ ভেঙে যায়। দোকানের চাল উড়ে গিয়ে পড়ে একটি স্কুলের পাঁচিলে। এবি ব্লকের একটি বাড়ির মূল দরজা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ওই বাড়ির বাসিন্দা প্রসূনজিৎ মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘কোনও রকমে বেঁচে গিয়েছি। বড় বিপদ ঘটতে পারত।’’ ঘটনাস্থল থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছে ফরেন্সিক দল। এবি ব্লক অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক গোপাল দত্ত বলেন, ‘‘আবাসিকদের সুরক্ষা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এ ভাবে যাতে দোকান চালানো না হয়, সে ব্যাপারে প্রশাসনকে জানিয়েছি।’’ এসি ব্লক অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক তপেশ মজুমদার বলেন, ‘‘ঝুপড়ি দোকান করে অনেকে সংসার চালাচ্ছেন, তা নিয়ে আপত্তি নেই। কিন্তু আগুনে কেউ মারাও যেতে পারতেন।’’   

স্থানীয় ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায় জানান, দোকান চালানো নিয়ে আপত্তি নেই। কিন্তু তা চালাতে হবে নিয়ম মেনে। ঘটনা প্রসঙ্গে দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু বলেন, ‘‘এই ধরনের দোকানগুলিতে অগ্নি-সুরক্ষা বিধি মানা হচ্ছে কি না, তা দেখুক স্থানীয় পুরসভা।’’ বিধাননগরের মেয়র কৃষ্ণা চক্রবর্তী বলেন, ‘‘বিষয়টি খোঁজ নিয়ে পদক্ষেপ করা হবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন