একতলার ছাদ ভেঙে গুরুতর আহত হলেন ৬৮ বছরের এক প্রাক্তন মহিলা পুলিশকর্মী। সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে বারুইপুর রেলগেটের কাছে। আহতের নাম শেফালি চক্রবর্তী। পুলিশ জানিয়েছে, ওই এলাকার একটি দোতলা বাড়িতে একাই থাকতেন শেফালিদেবী। একতলায় কেউ থাকতেন না। বাড়িটির অবস্থা অত্যন্ত জীর্ণ। প্রাথমিক ভাবে পুলিশের অনুমান, দিন কয়েক আগে একতলার ছাদ ভেঙে পড়ে। তখন দোতলা থেকে পড়ে যান শেফালিদেবী। তাঁর দু’টি পা-ই ভেঙে যায়।

স্থানীয় সূত্রের খবর, বারুইপুর পুরাতন বাজারে থাকেন শেফালিদেবীর দাদা প্রদীপ চক্রবর্তী। প্রদীপবাবুর মেয়ে বৃহস্পতিবার পিসির বাড়িতে পুজোর প্রসাদ দিয়ে এসেছিলেন। বহু ডেকেও শেফালিদেবীর সাড়া না পাওয়ায় তিনি বাড়ি ফিরে প্রদীপবাবুকে খবর দেন। খবর যায় থানাতেও।

এর পরেই আসে বারুইপুর থানার পুলিশ। প্রথমে তারা সিঁড়ির দরজা খুলে দোতলায় ওঠে। দেখা যায়, একতলার ছাদের একাংশ ভেঙে পড়ে রয়েছে। কিন্তু ওই প্রৌঢ়ার খোঁজ নেই। এর পরে পুলিশ একতলার ঘরের তালা ভেঙে গুরুতর জখম অবস্থায় শেফালিদেবীকে উদ্ধার করে। তাঁকে প্রথমে বারুইপুর মহকুমা হাসপাতাল, পরে ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।