বেপরোয়া গাড়ি ও মোটরবাইকের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে নিয়মিত। তা সত্ত্বেও মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে রাতের মধ্যে চারটি দুর্ঘটনা ঘটল শহরে। তাতে ভিন্ রাজ্যের এক যুবতীর মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন তিন জন।

পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাত দশটা নাগাদ উডবার্ন পার্কে বেলারানি দেববর্মণ (৩৩) নামে ত্রিপুরার এক যুবতীকে একটি গাড়ি ধাক্কা মারে। গুরুতর জখম অবস্থায় তাঁকে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। ওই ঘটনায় অভিযুক্ত গাড়িচালক ঘটনাস্থলে গাড়ি ফেলে পালিয়ে গিয়েছেন। গাড়িটি বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। ওই চালকের বিরুদ্ধে বেপরোয়া ভাবে গাড়ি চালানো এবং অনিচ্ছাকৃত ভাবে মৃত্যু ঘটানোর অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই রাতেই সাড়ে দশটা নাগাদ ফের একটি দুর্ঘটনা ঘটে। মোটরবাইকের ধাক্কায় স্ট্র্যান্ড রোডে মহম্মদ মুন্না নামে এক ফুটপাতবাসী আহত হন। তাঁর দু’টি হাঁটুতেই চোট লাগে। কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে ছেড়ে দেওয়া হয় মুন্নাকে। মোটরবাইক চালক পালিয়ে যান।

পুলিশ জানায়, অন্য একটি ঘটনায় মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা নাগাদ ধর্মতলায় জওহরলাল নেহরু রোড ও রানি রাসমণি অ্যাভিনিউয়ের সংযোগস্থলে একটি ট্যাক্সির ধাক্কায় বিজেন্দ্র মিস্ত্রি নামে এক ব্যক্তির বাঁ পায়ে চোট লাগে। এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়। ট্যাক্সিচালককে গ্রেফতার করেছে হেয়ার স্ট্রিট থানা। এই ঘটনার কিছু ক্ষণ আগে সন্ধ্যা পৌনে সাতটা নাগাদ বন্দর এলাকার সিজিআর রোডে দীপককুমার সাউ নামে এক সাইকেল-আরোহী একটি গাড়ির ধাক্কায় বাঁ পায়ে চোট পান। এসএসকেএম হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়।