বছর চারেক আগে কোকেন পাচারে অভিযুক্ত দুই নাইজিরীয় যুবককে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। ধৃতেরা এখন শহরের এক জেলে বন্দি। তখন পালিয়ে গিয়েছিল তাদের এক সঙ্গী। রবিবার, প্রিটোরিয়া স্ট্রিট থেকে ধরা পড়ল পলাতক সেই নাইজিরীয় যুবক হামিদ নাসির ওরফে হামবার্গ। তার কাছে মিলেছে এক কিলোগ্রামেরও বেশি চরস। যার বাজারদর দশ লক্ষেরও বেশি। উদ্ধার হয়েছে নাইজিরিয়া এবং ঘানার একই নামের দু’টি পাসপোর্ট।

হামবার্গকে জেরা করে পুলিশ মেফেয়ার রোড থেকে গৌতমপ্রসাদ ভির নামে এক অনাবাসী ভারতীয়কেও গ্রেফতার করে। পুলিশ জানায়, তার কাছে মিলেছে ৭ গ্রাম কোকেন। যার মূল্য কয়েক লক্ষ টাকা। সোমবার আদালতে বিচারক দুই ধৃতকে পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন।

সম্প্রতি পুলিশ জানতে পারে, এক নাইজিরীয়ের হাত ধরে শহরে ফের জাঁকিয়ে বসেছে মাদক চক্র। সেই যুবকের ছবির সঙ্গে চার বছর আগে পালিয়ে যাওয়া নাইজিরীয় যুবকের মিল দেখে তাঁরা বুঝতে পারেন ওই ব্যক্তি হামবার্গই। সপ্তাহ খানেক আগে শহরে এসে আনন্দপুরে ফ্ল্যাট ভাড়া নেয় সে। পুলিশ তার উপরে নজর রাখছিল। ক্রেতা সেজে পুলিশ হামবার্গ ও গৌতমকে ধরে।