মাঝেরহাট সেতু দুর্ঘটনার পরেই তড়িঘড়ি নড়ে বসলেন হিডকো এবং নবদিগন্ত শিল্পনগরী কর্তৃপক্ষ। পাঁচ নম্বর সেক্টর-সহ হিডকো এলাকায় সাতটি উড়ালপুল নিয়ে বুধবারই বৈঠক হয়।

হিডকো সূত্রে খবর, বিভাগীয় ইঞ্জিনিয়ারদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল নবদিগন্ত শিল্পনগরী, হিডকো এবং নিউ টাউন-কলকাতা ডেভেলপমেন্ট অথরিটি এলাকায় উড়ালপুলের অবস্থা খতিয়ে দেখার। এ দিনই নবদিগন্ত উড়ালপুল, নিউ টাউনের একটি মল সংলগ্ন উড়ালপুল, রাজারহাট বক্সব্রিজ, হলদিরামের কাছে উড়ালপুল-সহ সাতটিতে ঘুরে ইঞ্জিনিয়ারদের পর্যবেক্ষণ নিয়ে বিকেলে বৈঠকে আলোচনা হয় এবং পরবর্তী পদক্ষেপের সিদ্ধান্ত হয়।

হিডকো এবং নবদিগন্ত শিল্পনগরী কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান দেবাশিস সেন জানান, ইঞ্জিনিয়ারেরা উড়ালপুলের অবস্থা খতিয়ে দেখে তাঁদের রিপোর্ট জমা করেছেন। আলোচনার পরে পরবর্তী পদক্ষেপ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আরও খবর: এক বছর অবহেলায় আটকে মাঝেরহাটের ৩ কোটির সংস্কার

সূত্রের খবর, ছ’মাস আগেই এই সব এলাকার সাতটি উড়ালপুলের স্বাস্থ্য পরীক্ষা হয়েছিল। নবদিগন্তের এক কর্তা জানান, তার পরে বিশেষজ্ঞেরা যে সব পরামর্শ দিয়েছিলেন তা মেনে উড়ালপুলের কাজ হচ্ছে কি না, তা এ দিন খতিয়ে দেখা হয়েছে।

আরও খবর: গ্রামে প্রস্তুত কনে, শহরে ধ্বংসস্তূপের তলায় প্রণব​

হিডকোর এক কর্তা জানান, বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মেনেই কাজ হয়েছে। আরও কী ভাবে উড়ালপুলের স্বাস্থ্য ঠিক রাখা যায়, তা নিয়েও আলোচনা হয়েছে। সূত্রের খবর, উড়ালপুলের বহন ক্ষমতা অনুসারে গাড়ির চাপ নিয়ন্ত্রণ করা নিয়েও এ দিন আলোচনা হয়।