মা উড়ালপুল থেকে যে রাস্তা পার্ক সার্কাসে মিশছে, সেই রাস্তায় হয় পশ্চিমমুখী, না হলে পূর্বমুখী গাড়ি চলছেই। এমন কোনও সময় পাওয়া যায় না, যখন দু’দিকের গাড়ি থামছে এবং পথচারীরা নিশ্চিন্তে রাস্তা পারাপার করছেন। ফলে রাস্তা পারাপারের পক্ষে অত্যন্ত বিপজ্জনক এই অঞ্চল। পার্ক সার্কাসের সাত মাথার মোড়ের এই সমস্যা সম্প্রতি কলকাতা পুলিশের গোচরে আনেন স্থানীয় এক বাসিন্দা।

এর পরেই পুলিশ পথচারীদের রাস্তা পেরোনোর জন্য সেখানে ১৫ সেকেন্ড সময় বার করে দিয়েছে। তবুও সামগ্রিক ভাবে সমস্যা রয়েই গিয়েছে বলে জানাচ্ছেন জয়াদুর নামে ওই স্থানীয় বাসিন্দা। কারণ, সাত মাথার মোড়ের এক একটি দিক থেকে সময় মেপে গাড়ি ছাড়া এবং তারই মাঝে পথচারীদের রাস্তা পেরোনোর সুযোগ করে দিতে হিমশিম অবস্থা পুলিশের। সাত মাথার মোড়ের অনতিদূরে পার্ক সার্কাস রেলস্টেশন। সেখানে নেমে বহু মানুষ এই মোড় পেরিয়ে কাজে এবং নিকটবর্তী হাসপাতালে যান। মোড়ে এক একটি রাস্তা পেরোনোর জন্য জেব্রা ক্রসিংও রয়েছে। যদিও সেখান দিয়ে সব সময়ে গাড়ি ছুটছে। এমন পরিস্থিতিতে রাস্তা পারাপারের জন্য সেখানে ফুট ওভারব্রিজ বানানোর দাবি তুলেছেন স্থানীয়দের একাংশ। 

লালবাজার সূত্রের খবর, সাত মাথার মোড়ে ফুট ওভারব্রিজের অনুরোধ ২০১৮ সালের মার্চে কলকাতা পুলিশের ট্র্যাফিক দফতরের থেকে কলকাতা পুরসভায় পাঠানো হয়েছে। সোমবার এক পুর আধিকারিক বলেন, ‘‘এখনই এ নিয়ে কিছু বলা সম্ভব নয়। এ রকম প্রস্তাব কবে এসেছে, তা কী অবস্থায় আছে সে সব খোঁজ নিয়ে দেখতে হবে।’’ পুর প্রশাসনের বক্তব্য, ওই এলাকায় ফুট ওভারব্রিজ করতে গেলে যতটা চওড়া ফুটপাত বা জায়গার দরকার, তা ওখানে আদৌ রয়েছে কি না, সেটাও দেখতে হবে। তবে পুরকর্তাদের মতে, চলমান সিঁড়ি, লিফট-সহ ফুট ওভারব্রিজ করার মতো জায়গা ওখানে নেই।

এক পুলিশ আধিকারিক জানান, সাত মাথার মোড় দিয়ে যেহেতু উড়ালপুল গিয়েছে, তার স্তম্ভ মাটির নীচে রয়েছে। ওখানে ভূগর্ভস্থ নিকাশি নালা রয়েছে। ফলে, বেলেঘাটা বাইপাসের মতো আন্ডারপাস পার্ক সার্কাসে বানানো সম্ভব নয়। তাই ফুট ওভারব্রিজের প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।