• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মোদীর পথে এখনও কাঁটা ইডেন

প্রধানমন্ত্রীর সফরের দিন তাঁর যাতায়াতের পথে রবীন্দ্র জয়ন্তীর অনুষ্ঠান নিয়ে জট মোটামুটি কাটলেও আইপিএল ম্যাচ ঘিরে এখনও সমস্যায় লালবাজার। বুধবার রাত পর্যন্ত দফায় দফায় বৈঠক করেছেন পুলিশের কর্তারা। কিন্তু নিশ্চিত সমাধানসূত্র মেলেনি।

৯ মে শহরে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সে দিন বিকেলে তিনি এ জে সি বসু রোড উড়ালপুল এবং রেড রোড দিয়ে বারবার যাতায়াত করবেন। সে দিনই ক্যাথিড্রাল রোডে রবীন্দ্র জয়ন্তীর সরকারি অনুষ্ঠান। ইডেনে আইপিএল। সেই ম্যাচ শেষে দর্শকদের বেরোনোর সময়ের সঙ্গেও প্রধানমন্ত্রীর যাতায়াতের সময় মিলে যাচ্ছে। তাই প্রধানমন্ত্রীর যাতায়াতের পথ মসৃণ রাখতে চিন্তায় লালবাজার।

লালবাজার সূত্রের খবর, বুধবার প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা স্পেশ্যাল প্রোটেকশন গ্রুপের (এসপিজি) অফিসারেরা প্রধানমন্ত্রীর যাতায়াতের পথ ও নিরাপত্তা নিয়ে কলকাতা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (সদর) রাজীব মিশ্রের সঙ্গে বৈঠক করেন। সেই বৈঠকে রবীন্দ্র জয়ন্তীর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর যাতায়াতের পথ নিয়ে সমস্যা হয়নি। লালবাজারের সূত্র জানাচ্ছে, ক্যাথিড্রাল রোড ও রেস কোর্সের পাশের রাস্তা (যেখান দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কনভয় যাতায়াত করবে), তার মধ্যে অনেকটাই দূরত্ব রয়েছে। মাঝে একাধিক বাগান। ফলে রবীন্দ্র জয়ন্তীর ভিড় ওই রাস্তায় আসবে না। রেস কোর্সের পাশের ওই রাস্তায় লোকজনের চলাচল কম। ফলে ওই সমস্যা গুরুতর নয়।

কিন্তু আইপিএল ম্যাচ নিয়েই চিন্তায় এসপিজি। ওই ম্যাচ শেষ হবে সওয়া আটটায়। রামকৃষ্ণ মিশন সেবা প্রতিষ্ঠানের অনুষ্ঠান শেষে সাড়ে আটটা নাগাদ প্রধানমন্ত্রী রাজভবনে ফিরবেন। ওই সময়টা নিয়েই সমস্যা। লালবাজার সূত্রের খবর, প্রধানমন্ত্রী রাজভবনে ঢুকবেন সাউথ গেট দিয়ে (সেটাই প্রোটোকল)। ইডেনে খেলা শেষ হলে হাজার হাজার দর্শক ওই এলাকার বিভিন্ন রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করবেন। ফলে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার ক্ষেত্রেও ঝুঁকি থাকছে।

পুলিশের এক কর্তা জানান, সে ক্ষেত্রে আইপিএলের সময়সূচিতে সামান্য অদলবদল করা হতে পারে বা খেলা শেষে দর্শকদের কিছুক্ষণ আটকে রাখা হতে পারে। যদিও লালবাজার মনে করছে, এই দু’টি প্রক্রিয়াই যথেষ্ট সমস্যার। কী করা হলে পুরোটাই নির্বিঘ্নে মিটতে পারে, তা ঠিক করতে এ দিন কলকাতা পুলিশের বিভাগীয় ডেপুটি কমিশনারদের নিয়ে বৈঠক করেন যুগ্ম কমিশনার (সদর)।

প্রধানমন্ত্রীর দ্বিতীয় দিনের সূচিও স্থির করেছে পুলিশ। প্রশাসন সূত্রের খবর, ১০ মে সকাল সাতটা নাগাদ রাজভবন থেকে চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ, বিটি রোড হয়ে প্রধানমন্ত্রী প্রথমে দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে যাবেন। সেখান থেকে বালি ব্রিজ, জিটি রোড হয়ে বেলুড় মঠ। বেলুড়ে দর্শন সেরে বালি জুটমিল মাঠের অস্থায়ী হেলিপ্যাড থেকে হেলিকপ্টারে উঠবেন তিনি। যাবেন বার্নপুর। যেখানে অনুষ্ঠান সেরে অন্ডালের বিমানবন্দর থেকে বিশেষ বিমানে দিল্লি যাবেন মোদী।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন