মুরারিপুকুরে গায়িকাকে গ্রিনরুমে যৌন হেনস্থার অভিযোগে ধৃত সুরজিৎ সাহা ওরফে ভানুকে ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিল শিয়ালদহ আদালত। রবিবার ভানুকে ডানকুনি থেকে ধরে কলকাতা পুলিশ। সোমবার তাঁকে আদালতে হাজির করায় পুলিশ। ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে নির্যাতিতার গোপন জবানবন্দিও নথিভুক্ত করায়।

অভিযুক্তের আইনজীবী অসীম কুমার ভানুর জামিনের আবেদন জানিয়ে আদালতে বলেন, ‘‘পুলিশ যৌন হেনস্থার সঙ্গে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগও দায়ের করেছে। অথচ চার দিনেও তরুণীর শারীরিক পরীক্ষা করায়নি। যেটা জরুরি ছিল। উল্টে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে বেআইনি অস্ত্র রাখার অভিযোগও দায়ের করেছে। মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে।’’

সরকারি কৌঁসুলি অরূপ চক্রবর্তী জামিনের বিরোধিতা করে আদালতে জানান, ঘৃণ্য কাজ করেছেন অভিযুক্ত। যে ক্লাব জলসার আয়োজন করেছিল, অভিযুক্ত সেখানকার কর্মকর্তা। অভিযুক্তকে তাঁর সঙ্গীরা বাধা তো দেনইনি। উল্টে তাঁর কথায় গ্রিনরুমের দরজা বাইরে থেকে বন্ধ করে দিয়েছিলেন। গ্রেফতারের জন্য তাঁদের হদিস পেতে অভিযুক্তকে হেফাজতে নিয়ে জেরার প্রয়োজন রয়েছে।