মশা মারতে ধোঁয়ার ব্যবহার বন্ধ করুন। কলকাতা পুর প্রশাসনের পক্ষ থেকে এমনই বার্তা পাঠানো হচ্ছে মহেশতলা পুরসভার চেয়ারম্যান দুলালচন্দ্র দাসের কাছে। মঙ্গলবার এই সংক্রান্ত নোটে সই করেছেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম। ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ জানান, দু’-এক দিনের মধ্যেই ওই চিঠি পৌঁছে যাবে।

গত কয়েক দিন ধরে কলকাতা পুরসভার ১৩১ নম্বর ওয়ার্ডে ডেঙ্গির প্রকোপ বেড়েছে। কলকাতা পুর কর্তৃপক্ষের অভিযোগ, মহেশতলা পুর এলাকায় ডেঙ্গির জীবাণুবাহী মশা মারতে ধোঁয়া দেওয়া হচ্ছে। এর ফলে এডিস ইজিপ্টাইয়ের দল উড়ে আসছে ১৩১ নম্বর ওয়ার্ড এলাকায়। ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবার কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। স্বভাবতই শ্বশুরের এলাকার মশা জামাইয়ের ওয়ার্ডে ঢুকে ডেঙ্গি বাড়াচ্ছে বলে রব ওঠে পুর মহলে।

১৩২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সঞ্চিতা মিত্রও জানিয়েছেন, তাঁর এলাকায় ডেঙ্গির প্রকোপ রয়েছে। সেটা যে মহেশতলার কারণে, তা-ও জানাতে দ্বিধা করেননি তিনি। এ দিন অতীনবাবু বলেন, ‘‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশিকায় স্পষ্ট বলা রয়েছে, ধোঁয়া দিয়ে মশা মারা যায় না। উল্টে সেই ধোঁয়া মশাকে পালাতে সাহায্য করে। তাই টাকা খরচ করে ধোঁয়া দেওয়ার কোনও দরকার নেই। তা সত্ত্বেও অনেক পুরসভা এই কাজ করে যাচ্ছে। এটা বন্ধ হওয়া দরকার।’’