• শিবাজী দে সরকার
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

যানজট কমাতে আরও দুই উড়ালপুল চায় ট্র্যাফিক পুলিশ

Jam

যানজট কমাতে শহরে প্রয়োজন আরও দু’টি উড়ালপুল। এই মর্মে লালবাজারের কাছে দু’টি প্রস্তাবও জমা পড়েছে ট্র্যাফিক বিভাগের তরফে।

লালবাজার সূত্রের খবর, জওহরলাল নেহরু রোড এবং হসপিটাল রোডের মতো দু’টি রাস্তায় যানজট নিত্যদিনের সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ফলে হিমশিম অবস্থা আমজনতার। যত দিন যাচ্ছে, যানজটও তত বাড়ছে বলে অভিযোগ। ওই জট কাটিয়ে গাড়ির ফাঁক গলে এগোতে গিয়ে ঘটছে ছোটখাটো দুর্ঘটনাও। সূত্রের খবর, এই অবস্থা সামাল দিতে ওই দুই জায়গায় দু’টি পৃথক উড়ালপুল তৈরির প্রস্তাব দিয়েছে স্থানীয় ট্র্যাফিক পুলিশ। পুজোর পরপরই সেই প্রস্তাব লালবাজারের পরিযান শাখায় জমা পড়েছে। লালবাজার সূত্রের খবর, ওই প্রস্তাব নিয়ে প্রশাসনের উপরমহলে আলোচনা করে তবেই পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক হবে।

কী রয়েছে প্রস্তাবে?

পুলিশ জানায়, প্রথম প্রস্তাবটিতে জওহরলাল নেহরু রোডে ময়দান মেট্রো স্টেশনের কাছ থেকে শুরু করে রবীন্দ্র সদন পর্যন্ত উড়ালপুল করার কথা বলা হয়েছে। যার দৈর্ঘ্য হবে প্রায় দেড় কিলোমিটার। অর্থাৎ ক্যাথিড্র্যাল রোড এবং এজেসি বসু রোডের মোড়ের কাছে ওই উড়ালপুল শেষ হওয়ার কথা। পুলিশের দাবি, এতে ধর্মতলা এবং জওহরলাল নেহরু রোডে ধরে আসা দক্ষিণমুখী গাড়ি বিনা বাধায় পার্ক স্ট্রিট মোড়ের উড়ালপুল হয়ে রবীন্দ্র সদন পৌঁছে যাবে। এতে শেক্সপিয়র সরণি এবং জওহরলাল নেহরু রোড দিয়ে আসা ধর্মতলামুখী গাড়িও যানজটের কবলে কম পড়বে বলে পুলিশের দাবি।

দ্বিতীয় প্রস্তাবে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের সামনে কুইন্স ওয়ে থেকে একটি উড়ালপুল করার কথা বলা হয়েছে। যা মিশে যাবে এজেসি বসু রোডের উড়ালপুলের সঙ্গে। এতে ধর্মতলা বা মধ্য কলকাতা থেকে তুলনামূলক কম বাধায় ই এম বাইপাসে পৌঁছনো যাবে বলে পুলিশের আশা।

ওই দুই উড়ালপুলের প্রস্তাব কেন?

লালবাজারের একটি অংশ জানিয়েছে, চলতি বছর পরমা উড়ালপুলের সঙ্গে এজেসি বসু রোড উড়ালপুলের সংযুক্তির পরেই ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের কাছে যানজট রোজকার ঘটনা হয়ে গিয়েছে। যার প্রভাব পড়ে গিয়ে পড়ছে এজেসি বসু রোড উড়ালপুল, হসপিটাল রোড, কুইন্স ওয়ের মতো রাস্তায়। সেই সঙ্গে এজেসি বসু রোডের উড়ালপুলে ওঠার জন্য দীর্ঘক্ষণ যানজটে আটকে থাকতে হচ্ছে।

অন্য দিকে, আমেরিকান সেন্টারের কাছ থেকে জওহরলাল নেহরু রোড বা চৌরঙ্গী রোডের যানজটে সকাল-সন্ধ্যা সর্বক্ষণই আটকাতে হয় বলে অভিযোগ শহরবাসীর। এক পুলিশ কর্তার কথায়, পুজোর আগে দক্ষিণ ও মধ্য কলকাতার যানজটের কথা মাথায় রেখেই ওই
দু’টি উড়ালপুলের প্রস্তাব তৈরি করা হয়েছে। তবে কোনওটিরই দৈর্ঘ্য বেশি নয়। মূলত গড়িয়াহাট উড়ালপুলের ধাঁচে একটি বা দুটি গুরুত্বপূর্ণ মোড় এড়াতেই এই ভাবনা।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন