মিছিলের আবেদনে হ্যাঁ বা না, জানাতে হবে ছ’ঘণ্টায়
পুলিশ সূত্রের খবর, কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী, নির্ধারিত কর্মসূচির পাঁচ দিন আগে থেকে ৪৮ ঘণ্টা আগে পর্যন্ত কোনও রাজনৈতিক দল বা প্রার্থী ওই অ্যাপের মাধ্যমে পুলিশের কাছে আবেদন জানাতে পারে।
Lalbazar

—ফাইল চিত্র।

নির্বাচনের আগে সভা, মিছিল বা রাজনৈতিক কর্মসূচির অনুমতি পেতে হলে সংশ্লিষ্ট দল বা প্রার্থীকে স্থানীয় থানায় আবেদন জানাতে হয়। সেই আবেদন বিবেচনা করে পুলিশ সভা বা মিছিলের অনুমতি দিল কি না, তা এ বার আবেদন জমা পড়ার ৬ ঘণ্টার মধ্যে তাদের জানিয়ে দিতে হবে। এত দিন আবেদন গ্রাহ্য হচ্ছে কি না জানানোর জন্য ১৮ ঘণ্টা পর্যন্ত সময় পেত থানাগুলি। সেই পদ্ধতিতেই বদল আনল লালবাজার। লালবাজার সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই প্রতিটি থানায় এ ব্যাপারে নির্দেশ পাঠানো হয়েছে।

২০১৬ সালের বিধানসভা ভোটের সময়েই রাজনৈতিক সভা, মিছিল বা বিভিন্ন রাজনৈতিক কার্যকলাপ অনুমোদনের জন্য ‘সুবিধা’ অ্যাপ চালু করেছিল নির্বাচন কমিশন। পুলিশ সূত্রের খবর, কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী, নির্ধারিত কর্মসূচির পাঁচ দিন আগে থেকে ৪৮ ঘণ্টা আগে পর্যন্ত কোনও রাজনৈতিক দল বা প্রার্থী ওই অ্যাপের মাধ্যমে পুলিশের কাছে আবেদন জানাতে পারে। তার পরে আর আবেদন করা যায় না। এক-জানলা ওই পদ্ধতিতে আবেদন করলে কলকাতা পুলিশের অধীনে নির্দিষ্ট থানায় তা পৌঁছে যায়। যার ভিত্তিতে ওই কর্মসূচির অনুমতি দেওয়া যাবে কি না, আবেদনকারীকে জানিয়ে দেয় সংশ্লিষ্ট থানা। পুলিশ জানিয়েছে, আপাতত প্রতিদিন গড়ে থানাগুলিতে পাঁচ-ছ’টি করে এমন আবেদন জমা পড়ছে। এই নির্দেশ যাতে ঠিক মতো মানা হয়, মঙ্গলবার দু’টি ডিভিশনের সঙ্গে বৈঠকে পুলিশ কমিশনার রাজেশ কুমার আধিকারিকদের তা দেখার নির্দেশ দিয়েছেন।

লালবাজার সূত্রের খবর, ওই অ্যাপের মূল উদ্দেশ্য দ্রুত রাজনৈতিক কর্মসূচির অনুমোদন দেওয়া এবং কর্মসূচি অনুমোদনের বিষয়ে স্বচ্ছতা আনা। সে কারণেই নির্বাচন কমিশনের তরফে অ্যাপটি চালু করা হয়েছিল।

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

পুলিশের এক অংশের দাবি, ‘সুবিধা’ অ্যাপের মাধ্যমে জমা পড়া আবেদনের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে প্রতিটি থানাকে তার আশপাশের অন্যান্য থানা এলাকায় ওই নির্দিষ্ট সময় বা দিনে অন্য কোনও দলের কর্মসূচি আছে কি না, তা দেখে নিতে হচ্ছে। এমন আবেদন যখনই জমা পড়ুক না কেন, থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মীকে তা দ্রুত ওসি-র নজরে আনতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে কলকাতা পুলিশ এলাকায় ছ’ঘণ্টার মধ্যে সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিতে নির্দেশ দেওয়া হলেও জেলাগুলিতে এখনও তা চালু হয়নি। সেখানে আবেদন জমা পড়ার দু’দিনের মধ্যে সিদ্ধান্ত জানানো হচ্ছে বলে সূত্রের খবর।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত