এলাকায় মদ ও জুয়ার আসরের প্রতিবাদ করায় আক্রান্ত হলেন প্রতিবাদীরা।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুর থানার বেগমপুর এলাকায়। ঘটনায় অভিযোগের আঙুল উঠেছে এলাকায় পরিচিত কয়েক জন যুবকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার রাতেই বারুইপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন
আক্রান্তেরা। বারুইপুর থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করলেও এ পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বাড়িতে পোলট্রি ফার্মের মধ্যেই দিনের পর দিন মদ, গাঁজা, জুয়ার ঠেক চালাচ্ছিল দুষ্কৃতীরা। এমনকি তক্ষক পাচার ও নারী পাচার সংক্রান্ত কাজকর্মের সঙ্গেও ওই দুষ্কৃতীরা জড়িত বলে অভিযোগ। সে সবের বিরুদ্ধে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করে প্রশাসনের কাছে স্মারকলিপি দিতে উদ্যোগী হন অমিয় মণ্ডল, দেবাশিস রায়-সহ এলাকার জনা তিরিশ বাসিন্দা। তাঁদের অভিযোগ, বছর খানেক ধরেই ওই সবের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ চলছে। তার জেরে দিন তিনেক আগেও অভিযুক্তেরা কয়েক জন প্রতিবাদীর উপরে হামলা চালায় বলে অভিযোগ।

দেবাশিসবাবু বলেন, ‘‘গণস্বাক্ষর সংগ্রহের জন্য বুধবার পাড়ার একটি দোকানে গিয়েছিলাম। সেখানে ওই দুষ্কৃতীরা হাজির হয়। আমাকে মাটিতে ফেলে বেধড়ক মারধর করা হয়।’’ তাঁর সঙ্গে প্রহৃত হন অমিয়বাবু এবং এলাকার আরও এক বাসিন্দা।
রাতেই এলাকার বাসিন্দারা আক্রান্তদের উদ্ধার করে বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসার পরে বারুইপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। ঘটনার পর থেকে ওই দুষ্কৃতীরা পলাতক বলে জানিয়েছে পুলিশ।